সর্বশেষ সংবাদ: জাতীয় শিক্ষাক্রম অনুসরণ করছে ইবতেদায়ী মাদ্রাসা: শিক্ষামন্ত্রী রূপগঞ্জে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় যুবককে কুপিয়ে জখম করেছে কিশোর গ্যাং সদস্যরা সাবেক প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মুরাদ কানাডা-আমিরাতে ঢুকতে না পেরে ফিরে আসছেন ঢাকায় বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে ——- তারা‌বো পৌরসভার মেয়র হা‌সিনা গাজী সোনারগাওঁয়ের সাদিপুর ইউ,পিতে ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বার নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল এলাকায় র‌্যাব-১১ এর অভিযানে ০৪ পরিবহন চাঁদাবাজ গ্রেফতার রূপগঞ্জে পুলিশ পরিদর্শকসহ ব্যবসায়ীকে হানজালা বাহিনীর হুমকি, ইটপাটকেল নিক্ষেপে দুই পুলিশ সদস্য আহত রূপগঞ্জে মন্ত্রীর পক্ষে ছাত্রলীগ নেতারদের বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে মামলা বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হলেন আহমদে জামাল ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই দেশে ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু

সকল শিরোনাম

রাজনৈতিক সংঘাত বনাম জনসমাগমের রাজনীতি!! ব্রাজিল খেলায় সুনামি বইয়ে দিল : প্রতিপক্ষের বুকে কাঁপুনি শুরু বঙ্গবন্ধু টানেলের আংশিক খুলে দেওয়া হবে এ মাসেই ডিসেম্বরে ভারতের বিদ্যুৎ মিলবে বাংলাদেশে ১১ হাজার কর্মী ছাঁটাইয়ের ঘোষণা জাকারবার্গের মিয়ানমারে উপর নিষেধাজ্ঞা যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত হোন শর্ত ছাড়াই বাংলাদেশকে ৪৫০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে আইএমএফ সরকারি কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ স্থগিত কাতার বিশ্বকাপ : কন্টেইনারে রাতযাপনে গুনতে হবে ২১ হাজার টাকা ঋণের টাকায় দামি গাড়ি! পৃথিবীর তাপ রেকর্ড পরিমাণ বেড়েছে ১৫ নভেম্বর বিশ্বের জনসংখ্যা হবে ৮০০ কোটি আর্জেন্টিনা উগ্র ফুটবল সমর্থকগোষ্ঠী : বিশ্বকাপে ৬ হাজার আর্জেন্টাইন সমর্থক নিষিদ্ধ ২৫ কেজি সোনা নিলামে তুলবে বাংলাদেশ ব্যাংক খেলা যেন হয় শান্তিপূর্ণ ও নিরপেক্ষ ডিএসইর মানবসম্পদ নীতি নিয়ে বৈঠক ডেকেছে বিএসইসি ঋণ পাচ্ছে বাংলাদেশ যুদ্ধ হয়ে যাক একটা.. দীর্ঘদিন পর রাজনৈতিক সমাবেশে আসছেন প্রধানমন্ত্রী টাকা যেন একবারেই মূল্যহীন : ৫০ বছরে পণ্যমূল্য বেড়েছে ৮০ গুণ যৌন হয়রানি প্রতিকার কোথায়? সরকারের দমনপীড়নে গণজাগরণ দমানো যাবে না সংঘাত, সহিংসতা এবং সঙ্কটের রাজনীতি পাকিস্তানে বিএনপির সঙ্গে সম্পর্ক নেই হেফাজতের

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

ঋণ পাচ্ছে বাংলাদেশ পোশাক শিল্পে আশা জাগানিয়া খবর : রপ্তানি বেড়েছে ৪৩ শতাংশ ডলারের তেজ খানিকটা কমেছে ঝুঁকিতে বাংলাদেশ সরকারের ব্যাক ঋণ বাড়ছে মন্দা মোকাবিলায় আরও বাড়াতে হবে রিজার্ভ দেশের ব্যাংকিং ব্যবস্থায় জবাবদিহির অভাব ডলার সঙ্কটেও বেড়েই চলছে বাংলাদেশিদের বিদেশ যাত্রা সিলেটে মিলবে প্রতিদিন ৫-৭ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস আমদানি বৃদ্ধিতে অর্থনীতিতে স্বস্তির ইঙ্গিত তৈরি পোশাকের ক্রেতাদের এগিয়ে আসার আহ্বান বাণিজ্যমন্ত্রীর করোনায় ক্ষুদ্রঋণ : ৩ হাজার কোটির মধ্যে আড়াই মাসে মাত্র ২০ কোটি টাকা বিতরণ জুন থেকেই শ্রমিক ছাঁটাই হতে পারে: রুবানা হক ঘুরে দাঁড়াচ্ছে মোংলা বন্দর করোনায় ৪০ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ বেকারত্ব চীনে

ঋণ পাচ্ছে বাংলাদেশ

| ২৫ কার্তিক ১৪২৯ | Wednesday, November 9, 2022

 

 

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) কাছ থেকে সাড়ে ৪০০ কোটি ডলার বা সাড়ে ৪ বিলিয়ন ঋণের প্রথম কিস্তি এ বছরের মধ্যেই পাচ্ছে বাংলাদেশ। ইতোমধ্যে সংস্থাটির কাছ থেকে সবুজ সংকেত পাওয়া গেছে বলে সরকারের নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে কথা বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। দুই সপ্তাহের লম্বা সফর শেষে আইএমএফ প্রতিনিধিদল বুধবার অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে সফরের শেষ বৈঠকটি করে ঢাকা ছাড়বে। কেন্দ্রীয় ব্যাংক ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, প্রতিনিধিদলটি বাংলাদেশে তাদের নানা আলোচনার তথ্য তুলে ধরে আইএমএফের ওয়াশিংটন সদর দপ্তরে ইতিবাচক প্রতিবেদন দেবে। সেই প্রতিবেদনের ভিত্তিতে সংস্থাটির বোর্ড সভায় এই ঋণ অনুমোদন দেয়ার সম্ভাবনা আছে। জানা গেছে, সফরকারী আইএমএফ প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক শেষে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন করবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কমাল।

আড়াই বছরের করোনা মহামারির পর রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের ধাক্কায় বাংলাদেশের অর্থনীতিতে যে চাপ সৃষ্টি হয়েছে, সেই চাপ সামাল দিতে বিশ্ব আর্থিক খাতের অন্যতম প্রধান মোড়ল আইএমএফের ঋণ পাওয়া যাবে কি না সেটা নিয়ে নানা আলোচনা আছে। সরকারের নীতিনির্ধারক থেকে শুরু করে অর্থনীতিবিদ, ব্যবসায়ী নেতা থেকে শুরু করে সবার মনেই একই প্রশ্ন। আইএমএফ ঋণের জন্য যেসব শর্ত দিচ্ছে, সেসব শর্তের কতটা সরকার মানবে, সেসব প্রশ্নও আছে অনেকের মধ্যে।

আইএমএফের ঋণ পাওয়া যাবে কি না- এ প্রশ্নের জবাবে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান মঙ্গলবার দৈনিক বাংলাকে বলেন, ‘কেন পাব না? অবশ্যই আইএমএফ আমাদের ঋণ দেবে। আইএমএফ প্রতিনিধিদের সঙ্গে আমাদের সব বৈঠক ফলপ্রসূ হয়েছে। আমরা আইএমএফের সদস্য। যুদ্ধের কারণে আমাদের অর্থনীতি একটু চাপে পড়েছে। সেই চাপ সামাল দিতে আমরা তাদের কাছে সহায়তা চেয়েছি। তারা অবশ্যই আমাদের পাশে দাঁড়াবে। আর আরেকটি বিষয় হচ্ছে, আমরা অত্যন্ত ভালো ঋণগ্রহীতা, আমাদের ভাবমূর্তি খুবই ভালো। আইএমএফ, বিশ্বব্যাংক, এডিবিসহ সব দাতা দেশ ও সংস্থার ঋণ আমরা নিয়মিত পরিশোধ করেছি। কখনোই খেলাপি হইনি। তাই আমি বিশ্বাস করি, আইএমএফ অবশ্যই আমাদের সাড়ে ৪ বিলিয়ন ডলারের এই ঋণটা দেবে।’

ঋণের শর্ত প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘প্রথা অনুযায়ী সফর শেষে আইএমএফ একটি প্রতিবেদন দেবে। সেই প্রতিবেদন আমরা ভালোভাবে পড়ব। সেটা থেকে যেগুলো ভালো, আমাদের জন্য ভালো হবে, দেশের জন্য মঙ্গল হবে-সেগুলো অবশ্যই বিবেচনা করব।’

আইএমএফ ঢাকা অফিস সূত্রে জানা গেছে, অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর আইএমএফ প্রতিনিধিদলের সদস্যরাও একটি সংবাদ সম্মেলন করবে। এমনও হতে পারে, অর্থমন্ত্রী ও আইএমএফ প্রতিনিধিরা যৌথ সংবাদ সম্মেলনেও হাজির হতে পারে। সেই সংবাদ সম্মেলনেই ঋণের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত, শর্তসহ নানা বিষয়ে জানা যেতে পারে।

 

বেসরকারি গবেষণা সংস্থা পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (পিআরআই) নির্বাহী পরিচালক এবং দীর্ঘদিন আইএমএফের গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করে আসা অর্থনীতিবিদ আহসান এইচ মনসুরও আইএমএফের ঋণের ব্যাপারে আশার কথা শুনিয়েছেন। দৈনিক বাংলাকে তিনি বলেন, ‘দুই সপ্তাহ ধরে আইএমএফ কর্মকর্তারা বাংলাদেশ ব্যাংক, অর্থ মন্ত্রণালয়, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডসহ সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও সংস্থার সঙ্গে বৈঠক করছেন। সেসব বৈঠকে তারা কিছু শর্তের কথা বলছেন। তবে মনে রাখতে হবে, এসব শর্তের কোনোটাই কিন্তু নতুন নয়। বিভিন্ন সময় তারা এসব পরামর্শ দিয়েছে। এখন যেহেতু মোটা অংকের একটা ঋণ দিচ্ছে। তাই আবার মনে করিয়ে দিচ্ছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের স্বায়ত্তশাসন, ব্যাংকিং খাতে খেলাপি ঋণ কমানোসহ বিভিন্ন পরামর্শ তারা আগে থেকেই দিয়ে আসছে। আমাদের নিজেদের স্বার্থেই এসব পরামর্শ মানা উচিত ছিল।’

গভর্নরের সঙ্গে আবারও বৈঠক
আইএমএফ প্রতিনিধিদল মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার ও ডেপুটি গভর্নরদের সঙ্গে ফের বৈঠক করেছে। তবে বৈঠকে কী নিয়ে আলোচনা হয়েছে, তা জানা যায়নি।

বাংলাদেশের অর্থনীতির ভিত মজবুত করতে বিভিন্ন সময়ে ব্যাংকিং খাতের প্রধান সমস্যা খেলাপি ঋণের হার হ্রাস, রাজস্ব আদায় বাড়াতে রাজস্ব খাতের ব্যাপক সংস্কারের কথা বলে আসছিল। এ ছাড়া বাংলাদেশ ব্যাংককে পূর্ণ স্বায়ত্তশাসন প্রদান, বিদেশি মুদ্রার সঞ্চয়ন বা রিজার্ভের হিসাব পদ্ধতি আন্তর্জাতিক মানের করা, বিদেশি মুদ্রার বিনিময় হার বাজারের ওপর ছেড়ে দেয়া, আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে জ্বালানি তেলের দাম সমন্বয়সহ নানা পরামর্শ দিয়ে আসছে সংস্থাটি।

আইএমএফের ওপর কোনো কারণে নির্ভরশীল না থাকায় এতদিন সরকার ও বাংলাদেশ ব্যাংক এসব পরামর্শ আমলে নেয়নি। করোনা মহামারির দীর্ঘ ধাক্কার পর রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাবে বিশ্বের অনেক দেশের মতো বাংলাদেশের অর্থনীতিও বেশ চাপে পড়েছে। আর চাপ সামলাতে সরকার আইএমএফের কাছে সাড়ে ৪ বিলিয়ন ডলার ঋণ চেয়েছে।

ঋণ নিয়ে আলোচনা করতে আসা আইএমএফের প্রতিনিধিরা প্রতিদিন অর্থ মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ ব্যাংক, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করে জানিয়ে দিয়েছেন কোথায় কী ধরনের সংস্কার করতে হবে।

আইএমএফের এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের প্রধান রাহুল আনন্দের নেতৃত্বে ১০ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল গত ২৬ অক্টোবর ঢাকায় আসে। বাংলাদেশের ঋণ নিয়ে আইএমএফের সঙ্গে আলোচনা শুরু হয় এ বছরের জুলাইতে। ওই সময় আইএমএফের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ক্রিস্টালিনা জর্জিভার কাছে ৪৫০ কোটি ডলার ঋণ চেয়ে চিঠি দেয় অর্থ বিভাগ। চিঠিতে ঋণের বিষয়ে আইএমএফকে প্রয়োজনীয় আলোচনা শুরুর জন্য অনুরোধ করা হয়। তিন বছরের জন্য তিন কিস্তিতে ৪৫০ কোটি ডলার ঋণ চায় সরকার। মূলত লেনদেনের ভারসাম্য রক্ষা এবং বাজেটের সহায়তা বাবদ এই ঋণ চাওয়া হয়েছে, যদিও তখন ঋণ চাওয়া নিয়ে ‘লুকোচুরি’ খেলেছিল সরকার। অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘আমরা ঋণ চাইনি। তবে প্রয়োজন হলে চাইব।’

আইএমএফের কাছে ঋণ চাওয়ার বিষয়টি বাংলাদেশের জন্য নতুন নয়। ১০ বছর আগে বর্ধিত ঋণ কর্মসূচি বা ইসিএফের আওতায় ১০০ কোটি ডলার ঋণ দেয় সংস্থাটি। নতুন ভ্যাট আইন প্রণয়নসহ কিছু শর্ত সাপেক্ষে তিন কিস্তিতে ওই ঋণ ছাড় করে বাংলাদেশের ঘনিষ্ঠ উন্নয়ন সহযোগী আইএমএফ।