সর্বশেষ সংবাদ: জাতীয় শিক্ষাক্রম অনুসরণ করছে ইবতেদায়ী মাদ্রাসা: শিক্ষামন্ত্রী রূপগঞ্জে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় যুবককে কুপিয়ে জখম করেছে কিশোর গ্যাং সদস্যরা সাবেক প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মুরাদ কানাডা-আমিরাতে ঢুকতে না পেরে ফিরে আসছেন ঢাকায় বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে ——- তারা‌বো পৌরসভার মেয়র হা‌সিনা গাজী সোনারগাওঁয়ের সাদিপুর ইউ,পিতে ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বার নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল এলাকায় র‌্যাব-১১ এর অভিযানে ০৪ পরিবহন চাঁদাবাজ গ্রেফতার রূপগঞ্জে পুলিশ পরিদর্শকসহ ব্যবসায়ীকে হানজালা বাহিনীর হুমকি, ইটপাটকেল নিক্ষেপে দুই পুলিশ সদস্য আহত রূপগঞ্জে মন্ত্রীর পক্ষে ছাত্রলীগ নেতারদের বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে মামলা বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হলেন আহমদে জামাল ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই দেশে ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু

সকল শিরোনাম

রাজনৈতিক সংঘাত বনাম জনসমাগমের রাজনীতি!! ব্রাজিল খেলায় সুনামি বইয়ে দিল : প্রতিপক্ষের বুকে কাঁপুনি শুরু বঙ্গবন্ধু টানেলের আংশিক খুলে দেওয়া হবে এ মাসেই ডিসেম্বরে ভারতের বিদ্যুৎ মিলবে বাংলাদেশে ১১ হাজার কর্মী ছাঁটাইয়ের ঘোষণা জাকারবার্গের মিয়ানমারে উপর নিষেধাজ্ঞা যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত হোন শর্ত ছাড়াই বাংলাদেশকে ৪৫০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে আইএমএফ সরকারি কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ স্থগিত কাতার বিশ্বকাপ : কন্টেইনারে রাতযাপনে গুনতে হবে ২১ হাজার টাকা ঋণের টাকায় দামি গাড়ি! পৃথিবীর তাপ রেকর্ড পরিমাণ বেড়েছে ১৫ নভেম্বর বিশ্বের জনসংখ্যা হবে ৮০০ কোটি আর্জেন্টিনা উগ্র ফুটবল সমর্থকগোষ্ঠী : বিশ্বকাপে ৬ হাজার আর্জেন্টাইন সমর্থক নিষিদ্ধ ২৫ কেজি সোনা নিলামে তুলবে বাংলাদেশ ব্যাংক খেলা যেন হয় শান্তিপূর্ণ ও নিরপেক্ষ ডিএসইর মানবসম্পদ নীতি নিয়ে বৈঠক ডেকেছে বিএসইসি ঋণ পাচ্ছে বাংলাদেশ যুদ্ধ হয়ে যাক একটা.. দীর্ঘদিন পর রাজনৈতিক সমাবেশে আসছেন প্রধানমন্ত্রী টাকা যেন একবারেই মূল্যহীন : ৫০ বছরে পণ্যমূল্য বেড়েছে ৮০ গুণ যৌন হয়রানি প্রতিকার কোথায়? সরকারের দমনপীড়নে গণজাগরণ দমানো যাবে না সংঘাত, সহিংসতা এবং সঙ্কটের রাজনীতি পাকিস্তানে বিএনপির সঙ্গে সম্পর্ক নেই হেফাজতের

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

রাজনৈতিক সংঘাত বনাম জনসমাগমের রাজনীতি!! ব্রাজিল খেলায় সুনামি বইয়ে দিল : প্রতিপক্ষের বুকে কাঁপুনি শুরু ব্রাজিলের জাদুকরী খেলা দেখে অনেকে আর্জেন্টিনা ছাড়ছেন আপনার জীবন বদলে যাবেই… বঙ্গবন্ধু টানেলের আংশিক খুলে দেওয়া হবে এ মাসেই ডিসেম্বরে ভারতের বিদ্যুৎ মিলবে বাংলাদেশে যুদ্ধ না হলেও দেশে অর্থনৈতিক মন্দা আসত: জিএম কাদের ১১ হাজার কর্মী ছাঁটাইয়ের ঘোষণা জাকারবার্গের মিয়ানমারে উপর নিষেধাজ্ঞা সিনেটে বাইডেন এগিয়ে, ট্রাম্পের নিয়ন্ত্রণে হাউস যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত হোন শর্ত ছাড়াই বাংলাদেশকে ৪৫০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে আইএমএফ সরকারি কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ স্থগিত কাতার বিশ্বকাপ : কন্টেইনারে রাতযাপনে গুনতে হবে ২১ হাজার টাকা ঋণের টাকায় দামি গাড়ি!

বিএনপির সঙ্গে সম্পর্ক নেই হেফাজতের

| ২৩ কার্তিক ১৪২৯ | Monday, November 7, 2022

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশজাতীয় নির্বাচন এলেই আওয়ামী লীগ ও বিএনপি দুই দলই হেফাজতের দোয়া পেতে চায়—এমন প্রশ্নের জবাবে রাব্বানী বলেন, ‘ওরা কেন আমাদের নিয়ে টানাটানি করে জানি না। হেফাজত তো অরাজনৈতিক সংগঠন। আমরা কোনো রাজনীতিতে নেই। ১৩ দফা ইমানি দাবি নিয়েই আমরা মাঠে থাকব। তবে যারা ইসলামের বিরুদ্ধে কাজ করবে, কথা বলবে; আমরা তাদের পক্ষে নেই। এসব যোগ-বিয়োগ করেই আমরা অবস্থান নিয়ে থাকি।’ হেফাজতের পাশাপাশি তাহাফফুজে খতমে নবুওয়তের মহাসচিবের দায়িত্বে আছেন মাওলানা মুহিউদ্দিন রাব্বানী। তিনি বলেন, ‘ধর্মীয় দৃষ্টিকোণ থেকেই হেফাজত গঠন করেছিলেন আহমদ শফী হুজুর। সংগঠনের একমাত্র উদ্দেশ্য, শুধুই ইসলামের স্বার্থ দেখা।’

হেফাজতে ইসলামের বর্তমান কমিটিতে দুজন বাদে অন্য সবাই আগে ‘বিএনপির বি টিম’ হিসেবে কাজ করতেন—সংগঠনের সাবেক যুগ্ম মহাসচিব ও শফিপন্থি হিসেবে পরিচিত মঈনুদ্দির রুহীর এমন অভিযোগের বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে মাওলানা রাব্বানী বলেন, ‘এমনি মুখে বললে তো হবে না! চামড়ার মুখে অনেক কিছু বলা যায়। হাতে প্রমাণ থাকলে উপস্থাপন করুক। বিএনপির সঙ্গে আমাদের কোনো যোগসূত্র নেই। আর দেশের মানুষ ভালো করেই জানেন, মঈনুদ্দিন রুহীরা কার লোক ছিলেন, কার কাছ থেকে সুবিধা নিয়েছেন। এখন কার লোক হিসেবে কাজ করেন।’

২০১৩ সালের ৫ মে শাপলা চত্বরের কর্মসূচিতে সংগঠনের কোনো ভুল ছিল কিনা জানতে চাইলে হেফাজতের এ যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘অতীত নিয়ে আর কথা বলতে চাই না। পুরোনো বিষয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করা মঙ্গলজনক নয়। আমরা সামনে এগিয়ে যেতে চাই। সমৃদ্ধ দেশ গঠনে ভূমিকা রাখতে চাই। ইসলাম প্রতিষ্ঠা করতে চাই।’

আগামী ডিসেম্বর ঘিরে রাজনীতির মাঠ গরম হয়ে উঠছে। দেশের রাজনীতি কোন পথে এগোচ্ছে, সংঘাত নাকি শান্তির পথে? এ প্রশ্নের জবাবে মাওলানা রাব্বানী বলেন, ‘আমরা রাজনীতি বুঝি না। ডিসেম্বরও বুঝি না। রাজনীতিকরা সময় বুঝে কৌশলী কর্মসূচি দিচ্ছেন। আমরা কিন্তু ওই মাঠে নেই। তবে দেশে শান্তি দরকার। দেশবাসী সংঘাত চায় না, শান্তিতে দুবেলা দুমুঠো খেয়ে বাঁচতে চায়।’ বিজয় দিবসের পরদিন হেফাজতের ওলামা মাশায়েখ সম্মেলন ঘোষণা করা হলো কেন? জানতে চাইলে তিনি সরাসরি জবাব না দিয়ে বলেন, ‘আমরা কর্মসূচি ঘোষণা করার সময় অতসব চিন্তাভাবনা করি না।’

বিএনপির সরকারবিরোধী আন্দোলনের সঙ্গে ওলামা মাশায়েখ সম্মেলনের কোনো সম্পর্ক নেই দাবি করে হেফাজতের এ যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘আমাদের দফা তো ১৩টি। এগুলো এদেশের তৌহিদি জনতার ইমানি দাবি।’ বিশ্বমন্দার এ দুঃসময়ে সবাই মিলে দেশরক্ষায় শামিল হতে হবে মন্তব্য করে তিনি আরও বলেন, ‘আমরা খুব কঠিন সময় অতিক্রম করছি। এ অবস্থায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশরক্ষায় সবার কাজ করা উচিত।’

সংগঠনের সাবেক আমির ও মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীর ইন্তেকালের পর প্রায় একবছর নিষ্ক্রিয় ছিল হেফাজত। এর কারণ প্রসঙ্গে মাওলানা রাব্বানী বলেন, ‘আমরা আসলে শোকাহত ছিলাম। বাবুনগরীসহ আরও কয়েকজন আমাদের মুরুব্বি আলেম ইন্তেকাল করেছিলেন ওই সময়। তাদের মৃত্যু হেফাজতের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি।’