সর্বশেষ সংবাদ: রূপগঞ্জে পানি দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনাসভা ও র‌্যালি অনুষ্ঠিত রূপগঞ্জে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় যুবককে কুপিয়ে জখম করেছে কিশোর গ্যাং সদস্যরা সাবেক প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মুরাদ কানাডা-আমিরাতে ঢুকতে না পেরে ফিরে আসছেন ঢাকায় বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে ——- তারা‌বো পৌরসভার মেয়র হা‌সিনা গাজী সোনারগাওঁয়ের সাদিপুর ইউ,পিতে ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বার নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল এলাকায় র‌্যাব-১১ এর অভিযানে ০৪ পরিবহন চাঁদাবাজ গ্রেফতার রূপগঞ্জে পুলিশ পরিদর্শকসহ ব্যবসায়ীকে হানজালা বাহিনীর হুমকি, ইটপাটকেল নিক্ষেপে দুই পুলিশ সদস্য আহত রূপগঞ্জে মন্ত্রীর পক্ষে ছাত্রলীগ নেতারদের বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে মামলা বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হলেন আহমদে জামাল ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই দেশে ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু

সকল শিরোনাম

রূপগঞ্জে পানি দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনাসভা ও র‌্যালি অনুষ্ঠিত মাদক,সন্ত্রাস ও ইভটিজিং নির্মূলে খেলাধূলার ভূমিকা অপরিসীম- কাউন্সিলর…মাহমুদুল হাসান পলিন রূপগঞ্জে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় যুবককে কুপিয়ে জখম করেছে কিশোর গ্যাং সদস্যরা সাবেক প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মুরাদ কানাডা-আমিরাতে ঢুকতে না পেরে ফিরে আসছেন ঢাকায় বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে ——- তারা‌বো পৌরসভার মেয়র হা‌সিনা গাজী সোনারগাওঁয়ের সাদিপুর ইউ,পিতে ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বার নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল এলাকায় র‌্যাব-১১ এর অভিযানে ০৪ পরিবহন চাঁদাবাজ গ্রেফতার রূপগঞ্জে পুলিশ পরিদর্শকসহ ব্যবসায়ীকে হানজালা বাহিনীর হুমকি, ইটপাটকেল নিক্ষেপে দুই পুলিশ সদস্য আহত রূপগঞ্জে মন্ত্রীর পক্ষে ছাত্রলীগ নেতারদের বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে মামলা বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হলেন আহমদে জামাল ঢাকায় বিয়ে উৎসব, অংশ নেবেন কারা? ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই দেশে ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু গোটা বিশ্বই ধ্বংস হবে মশা মারার ওষুধ কতটা কার্যকর? সশস্ত্র বিক্ষোভের শঙ্কায় যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সতর্কতা বিটিএমসিতে অনিয়ম ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে দল ঘোষণা আমাকে বিয়ে করবে? শ্রীলেখা ক্রেডিট কার্ডের সর্বোচ্চ সুদ ২০ শতাংশ নির্ধারণ ১১৬৮ নমুনায় ৮৮ আক্রান্ত করোনা কেড়ে নিল আরও ২১ প্রাণ বার্সেলোনার সভাপতি নির্বাচন স্থগিত ভোটে সক্রিয় ছিল না বিএনপি টাকা যাঁর, টিকা তাঁর এমন যেন না হয়… ওবায়দুল কাদেরের ভাই কাদের মির্জা জয়ী

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

গোটা বিশ্বই ধ্বংস হবে সশস্ত্র বিক্ষোভের শঙ্কায় যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সতর্কতা রেমিট্যান্স বিনিয়োগে আনার পরিকল্পনা ১৯ জানুয়ারী থেকে যুক্তরাজ্যে সব ধরণের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা করোনায় করনীয় এবং জাপান বিএনপি’র কর্মী সম্মেলন অনুষ্ঠিত সীমান্ত খুলে দিচ্ছে ইউরোপের দেশগুলো গ্রীষ্মেই মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ ইতালির গবেষকদের টিকা রেলে পণ্য পরিবহনে দিল্লির প্রস্তাব, খতিয়ে দেখছে ঢাকা ৩ ট্রিলিয়ন ঋণ নিতে চায় যুক্তরাষ্ট্র করোনার দ্বিতীয় ঝড় হবে আরও ‘ভয়াবহ’: ব্রিটিশ বিজ্ঞানী মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে ট্রাম্পের দাবির জবাবে যা বলল চীন এতটা ভয়ঙ্কর করোনা, কয়েক সপ্তাহে পুরো পরিবার শেষ! ভারতে বেড়েই চলেছে করোনা সংক্রমণ, ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড আক্রান্ত লকডাউনের মধ্যেই মালয়েশিয়ায় শত শত শ্রমিক গ্রেফতার ডিজিটাল মুদ্রা চালু করছে চীন

রেমিট্যান্স বিনিয়োগে আনার পরিকল্পনা

| ৪ মাঘ ১৪২৭ | Sunday, January 17, 2021

 

 

 

আবু আলী : কোটি প্রবাসীর পাঠানো টাকায় বড় হচ্ছে দেশের অর্থনীতি। এর ওপর ভর করেই বাড়ছে রিজার্ভ। বিশাল অঙ্কের এ রেমিট্যান্স অলস পড়ে থাকছে। এ অবস্থায় বিশাল অঙ্কের এ অর্থ সরাসরি বিনিয়োগে আনার পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে সরকার। আগামী ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেটে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা থাকছে। খবর অর্থ বিভাগ সূত্রের।

জানা গেছে, চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটে ২ শতাংশ প্রণোদনা ঘোষণার পর রেমিট্যান্স আহরণ উল্লেখযোগ্য হারে বাড়ছে। বাজেটে এ খাতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ৩ হাজার কোটি টাকা। এর ফলে চলতি অর্থবছর শেষে রেমিট্যান্স আহরণ ৫ বিলিয়ন ডলার বাড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকে রিজার্ভের পরিমাণ ৪৩ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে। প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সের টাকার সিংহভাগ ভোগব্যয় খাতে ব্যয় হচ্ছে। কিন্তু বিপুল পরিমাণ এই অর্থ সরাসরি বিনিয়োগে নিয়ে আসা সম্ভব হলে কর্মসংস্থান ও প্রবৃদ্ধি অর্জনে তা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে সক্ষম হবে। এ কারণে নতুন বাজেটে রেমিট্যান্সের অর্থ বিনিয়োগে নিয়ে আসার বিশেষ পলিসি নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, মূলত করোনার ধাক্কায় অর্থনীতিতে সৃষ্ট নেতিবাচক অবস্থার কারণে আমদানি কমে যাওয়ায় রিজার্ভ বাড়ছে। গত অর্থবছরের তুলনায় আমদানি ব্যয় ৮ দশমিক ৫৬ শতাংশ কমে ৫৪ দশমিক ৫৬ বিলিয়ন ডলার আমদানি হয়; করোনার ধাক্কা না থাকলে যা ৬০ বিলিয়ন ডলারের কাছাকাছি যেত। আমদানি ব্যয় হ্রাসের সঙ্গে শিক্ষা, চিকিৎসাসহ নানা কাজে যে বৈদেশিক মুদ্রা ব্যয় হতো, তা এই সময় হয়নি। এটিও মজুদ বাড়াতে ভূমিকা রাখছে।

রেমিট্যান্সপ্রবাহ বজায় থাকায় বৈদেশিক মুদ্রার মজুদ নতুন উচ্চতায় পৌঁছানোর কথা উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, রিজার্ভ ৪৩ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাওয়া আমাদের অর্থনৈতিক সক্ষমতার অন্যতম মাইলফলক। নতুন একটি বছরের শুরুতে অবশ্যই এটি অত্যন্ত সুখকর ঘটনা। জানা গেছে, এক কোটি প্রবাসী বিদেশ থেকে টাকা

পাঠাচ্ছেন। সামষ্টিক অর্থনীতিতে এই অর্থের গুরুত্ব ও অবদান দিন দিন বাড়ছে। তবে রেমিট্যান্সের টাকা বিনিয়োগে নিয়ে আসার সেই রকম কোনো পলিসি দেশে নেই। সরকারি প্রণোদনায় রেমিট্যান্স আগামীতে আরও বাড়বে বলে মনে করছে অর্থ মন্ত্রণালয়। এ কারণে নতুন বাজেটে একটি পলিসি গ্রহণ করার কথা ভাবা হচ্ছে। রেমিট্যান্সের টাকা প্রবাসীরা যেন বিনিয়োগ করে লাভবান হতে পারেন, সেই উদ্যোগ নেওয়া হবে।

গত ডিসেম্বরের শুরুতে অর্থ মন্ত্রণালয়ের বাজেট অনুবিভাগ আগামী অর্থবছরের জন্য বাজেট প্রণয়নসংক্রান্ত একটি বৈঠক করে। ওই বৈঠকে বাজেটের আকার কী রকম হবে, কোন কোন খাতে গুরুত্ব দেওয়া হবে, মন্ত্রণালয়গুলোর বাজেট কাঠামো কতদিনের মধ্যে পাঠাতে হবে, বিশেষ কোনো পলিসি গ্রহণ করা হবে কিনা- এসব বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, ঘাটতির বিষয়টি মাথায় রেখে আগামী বাজেটের আকার ৫০ হাজার কোটি টাকা বাড়িয়ে ৫ লাখ ৮৩ হাজার কোটি টাকার একটি প্রাথমিক কাঠামো দাঁড় করানো হয়েছে। এ সংক্রান্ত আরও কয়েকটি বৈঠকের পর আকার চূড়ান্ত করা হবে।

অর্থ বিভাগ সূত্র জানিয়েছে, বাজেট প্রণয়নের কাজ শুরু করা হয়েছে, তবে কোনোকিছুই চূড়ান্ত হয়নি। আগামী ২৪ জানুয়ারির মধ্যে মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলোর বাজেট কাঠামো পাওয়ার পর এ বিষয়ে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

এদিকে টানা তৃতীয়বারের মতো আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার দেশ পরিচালনার সুযোগ পাওয়ায় বাজেটেও এর ধারাবাহিকতা রক্ষা করা হচ্ছে। প্রতিবছর বাড়ছে বাজেটের আকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশন-২১ বাস্তবায়নে সবচেয়ে বেশি জোর দেওয়া হবে নতুন বাজেটে। ওই সময়ের মধ্যে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশের কাতারে নিয়ে যাওয়া এবং দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করা হবে।

আগামী ১০০ বছরে কোনদিকে যাবে বাংলাদেশ, সে জন্য করা হয়েছে ডেল্টা প্ল্যান। এ ছাড়া ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত রাষ্ট্রের কাতারে পৌঁছানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এই লক্ষ্যমাত্রার নাম দেওয়া হয়েছে রূপকল্প-৪১।