সর্বশেষ সংবাদ: রূপগঞ্জে পানি দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনাসভা ও র‌্যালি অনুষ্ঠিত রূপগঞ্জে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় যুবককে কুপিয়ে জখম করেছে কিশোর গ্যাং সদস্যরা সাবেক প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মুরাদ কানাডা-আমিরাতে ঢুকতে না পেরে ফিরে আসছেন ঢাকায় বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে ——- তারা‌বো পৌরসভার মেয়র হা‌সিনা গাজী সোনারগাওঁয়ের সাদিপুর ইউ,পিতে ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বার নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল এলাকায় র‌্যাব-১১ এর অভিযানে ০৪ পরিবহন চাঁদাবাজ গ্রেফতার রূপগঞ্জে পুলিশ পরিদর্শকসহ ব্যবসায়ীকে হানজালা বাহিনীর হুমকি, ইটপাটকেল নিক্ষেপে দুই পুলিশ সদস্য আহত রূপগঞ্জে মন্ত্রীর পক্ষে ছাত্রলীগ নেতারদের বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে মামলা বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হলেন আহমদে জামাল ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই দেশে ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু

সকল শিরোনাম

রূপগঞ্জে পানি দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনাসভা ও র‌্যালি অনুষ্ঠিত মাদক,সন্ত্রাস ও ইভটিজিং নির্মূলে খেলাধূলার ভূমিকা অপরিসীম- কাউন্সিলর…মাহমুদুল হাসান পলিন রূপগঞ্জে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় যুবককে কুপিয়ে জখম করেছে কিশোর গ্যাং সদস্যরা সাবেক প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মুরাদ কানাডা-আমিরাতে ঢুকতে না পেরে ফিরে আসছেন ঢাকায় বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে ——- তারা‌বো পৌরসভার মেয়র হা‌সিনা গাজী সোনারগাওঁয়ের সাদিপুর ইউ,পিতে ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বার নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল এলাকায় র‌্যাব-১১ এর অভিযানে ০৪ পরিবহন চাঁদাবাজ গ্রেফতার রূপগঞ্জে পুলিশ পরিদর্শকসহ ব্যবসায়ীকে হানজালা বাহিনীর হুমকি, ইটপাটকেল নিক্ষেপে দুই পুলিশ সদস্য আহত রূপগঞ্জে মন্ত্রীর পক্ষে ছাত্রলীগ নেতারদের বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে মামলা বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হলেন আহমদে জামাল ঢাকায় বিয়ে উৎসব, অংশ নেবেন কারা? ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই দেশে ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু গোটা বিশ্বই ধ্বংস হবে মশা মারার ওষুধ কতটা কার্যকর? সশস্ত্র বিক্ষোভের শঙ্কায় যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সতর্কতা বিটিএমসিতে অনিয়ম ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে দল ঘোষণা আমাকে বিয়ে করবে? শ্রীলেখা ক্রেডিট কার্ডের সর্বোচ্চ সুদ ২০ শতাংশ নির্ধারণ ১১৬৮ নমুনায় ৮৮ আক্রান্ত করোনা কেড়ে নিল আরও ২১ প্রাণ বার্সেলোনার সভাপতি নির্বাচন স্থগিত ভোটে সক্রিয় ছিল না বিএনপি টাকা যাঁর, টিকা তাঁর এমন যেন না হয়… ওবায়দুল কাদেরের ভাই কাদের মির্জা জয়ী

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

গোটা বিশ্বই ধ্বংস হবে সশস্ত্র বিক্ষোভের শঙ্কায় যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সতর্কতা রেমিট্যান্স বিনিয়োগে আনার পরিকল্পনা ১৯ জানুয়ারী থেকে যুক্তরাজ্যে সব ধরণের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা করোনায় করনীয় এবং জাপান বিএনপি’র কর্মী সম্মেলন অনুষ্ঠিত সীমান্ত খুলে দিচ্ছে ইউরোপের দেশগুলো গ্রীষ্মেই মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ ইতালির গবেষকদের টিকা রেলে পণ্য পরিবহনে দিল্লির প্রস্তাব, খতিয়ে দেখছে ঢাকা ৩ ট্রিলিয়ন ঋণ নিতে চায় যুক্তরাষ্ট্র করোনার দ্বিতীয় ঝড় হবে আরও ‘ভয়াবহ’: ব্রিটিশ বিজ্ঞানী মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে ট্রাম্পের দাবির জবাবে যা বলল চীন এতটা ভয়ঙ্কর করোনা, কয়েক সপ্তাহে পুরো পরিবার শেষ! ভারতে বেড়েই চলেছে করোনা সংক্রমণ, ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড আক্রান্ত লকডাউনের মধ্যেই মালয়েশিয়ায় শত শত শ্রমিক গ্রেফতার ডিজিটাল মুদ্রা চালু করছে চীন

লকডাউনের মধ্যেই মালয়েশিয়ায় শত শত শ্রমিক গ্রেফতার

| ১৯ বৈশাখ ১৪২৭ | Saturday, May 2, 2020

---নিউজ-বাংলাদেশ ডেস্ক : অবৈধভাবে বসবাসের অভিযোগে শত শত অভিবাসী ও শরণার্থীকে গ্রেফতার করেছে মালয়েশিয়া। বিভিন্ন মানবাধিকার গোষ্ঠীর বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর দিয়েছে।

এমন সময় এই গ্রেফতারের খবর এল, যখন করোনাভাইরাস রোধে দেশটিতে ভ্রমণ ও চলাচলে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

সাম্প্রতিক দিনগুলোতে অভিবাসীদের অবস্থান নিয়ে মালয়েশিয়ায় মানুষের মধ্যে ক্ষোভ রয়েছে। তাদের অভিযোগ, অভিবাসীরা মহামারী ছড়াচ্ছেন এবং সরকারি সম্পদের জন্য বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছেন।

দেশটিতে অন্তত ২০ লাখ নিবন্ধিত বিদেশি শ্রমিক আছেন। কিন্তু কর্তৃপক্ষের হিসাবে, সঠিক কাগজপত্র ছাড়াও আরও অনেকে বসবাস করছেন।

শরণার্থীদের স্বীকৃতি না দিয়ে তাদের অবৈধ অভিবাসী হিসেবে আখ্যায়িত করছে মালয়েশিয়া। রাজধানী কুয়ালালামপুরে হাজার হাজার শ্রমিক ও শরণার্থীর বসবাস।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ ও এশিয়া প্যাসিফিক রিফিউজি রাইটস নেটওয়ার্ক বলছে, অন্তত ৭০০ অভিবাসীকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আটকদের মধ্যে শিশু ও বেশ কিছু রোহিঙ্গা শরণার্থীও রয়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মালয়েশিয়ার অভিবাসন কর্তৃপক্ষের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশন বলছে, স্বল্পসংখ্যক আশ্রয়প্রার্থীকে আটক করা হয়েছে। পরিচয় শনাক্ত করতে শরণার্থী ও আশ্রয়প্রার্থীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মালয়েশীয় কর্মকর্তা বলেন, বিদেশি শ্রমিকদের আটক করা হয়েছে। তাদের অধিকাংশই দক্ষিণ এশিয়ার। এখানে অবস্থান করতে তাদের কাছে প্রয়োজনীয় অনুমতি ছিল না। আগামীতেও এই অভিযান চলবে বলে তিনি জানান।

এশিয়া প্যাসিফিক রিফিউজি রাইটস নেটওয়ার্কের প্রোগ্রাম কর্মকর্তা রাচেল তান বলেন, ভয়ঙ্কর ও বিপজ্জনক পরিবেশের মধ্যে পরিশ্রান্ত হয়ে পড়া লোকজনকে অপরাধী সাব্যস্তকরণ হচ্ছে এই গ্রেফতার অভিযান।

তিনি বলেন, নিষ্পাপ শিশুদেরও টেনেহিঁচড়ে গবাদিপশুর মতো ট্রাকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।