সর্বশেষ সংবাদ: জাতীয় শিক্ষাক্রম অনুসরণ করছে ইবতেদায়ী মাদ্রাসা: শিক্ষামন্ত্রী রূপগঞ্জে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় যুবককে কুপিয়ে জখম করেছে কিশোর গ্যাং সদস্যরা সাবেক প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মুরাদ কানাডা-আমিরাতে ঢুকতে না পেরে ফিরে আসছেন ঢাকায় বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে ——- তারা‌বো পৌরসভার মেয়র হা‌সিনা গাজী সোনারগাওঁয়ের সাদিপুর ইউ,পিতে ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বার নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগ সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল এলাকায় র‌্যাব-১১ এর অভিযানে ০৪ পরিবহন চাঁদাবাজ গ্রেফতার রূপগঞ্জে পুলিশ পরিদর্শকসহ ব্যবসায়ীকে হানজালা বাহিনীর হুমকি, ইটপাটকেল নিক্ষেপে দুই পুলিশ সদস্য আহত রূপগঞ্জে মন্ত্রীর পক্ষে ছাত্রলীগ নেতারদের বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে মামলা বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হলেন আহমদে জামাল ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই দেশে ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু

সকল শিরোনাম

রাজনৈতিক সংঘাত বনাম জনসমাগমের রাজনীতি!! ব্রাজিল খেলায় সুনামি বইয়ে দিল : প্রতিপক্ষের বুকে কাঁপুনি শুরু বঙ্গবন্ধু টানেলের আংশিক খুলে দেওয়া হবে এ মাসেই ডিসেম্বরে ভারতের বিদ্যুৎ মিলবে বাংলাদেশে ১১ হাজার কর্মী ছাঁটাইয়ের ঘোষণা জাকারবার্গের মিয়ানমারে উপর নিষেধাজ্ঞা যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত হোন শর্ত ছাড়াই বাংলাদেশকে ৪৫০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে আইএমএফ সরকারি কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ স্থগিত কাতার বিশ্বকাপ : কন্টেইনারে রাতযাপনে গুনতে হবে ২১ হাজার টাকা ঋণের টাকায় দামি গাড়ি! পৃথিবীর তাপ রেকর্ড পরিমাণ বেড়েছে ১৫ নভেম্বর বিশ্বের জনসংখ্যা হবে ৮০০ কোটি আর্জেন্টিনা উগ্র ফুটবল সমর্থকগোষ্ঠী : বিশ্বকাপে ৬ হাজার আর্জেন্টাইন সমর্থক নিষিদ্ধ ২৫ কেজি সোনা নিলামে তুলবে বাংলাদেশ ব্যাংক খেলা যেন হয় শান্তিপূর্ণ ও নিরপেক্ষ ডিএসইর মানবসম্পদ নীতি নিয়ে বৈঠক ডেকেছে বিএসইসি ঋণ পাচ্ছে বাংলাদেশ যুদ্ধ হয়ে যাক একটা.. দীর্ঘদিন পর রাজনৈতিক সমাবেশে আসছেন প্রধানমন্ত্রী টাকা যেন একবারেই মূল্যহীন : ৫০ বছরে পণ্যমূল্য বেড়েছে ৮০ গুণ যৌন হয়রানি প্রতিকার কোথায়? সরকারের দমনপীড়নে গণজাগরণ দমানো যাবে না সংঘাত, সহিংসতা এবং সঙ্কটের রাজনীতি পাকিস্তানে বিএনপির সঙ্গে সম্পর্ক নেই হেফাজতের

এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

১১ হাজার কর্মী ছাঁটাইয়ের ঘোষণা জাকারবার্গের ২৫ কেজি সোনা নিলামে তুলবে বাংলাদেশ ব্যাংক সেই রোলস রয়েস খালাসে গুনতে হবে ৮৫ কোটি টাকা খাওয়ার মাঝে পানি পান স্বাস্থ্যের জন্য ভালো রাশিয়ার বিরুদ্ধে জাতিসংঘে ভোট দিলো বাংলাদেশ পোকামাকড় দূর করতে যে পাঁচটি গাছ উপকারী হঠাৎ করে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে বাংলাদেশের বৈদেশিক ঋণ পরিস্থিতি স্বাভাবিক ভারতে ফাইভজির যাত্রা শুরু বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হলেন আহমদে জামাল বিনামূল্যে করোনার ভ্যাকসিন চান বিশ্বনেতারা শাকসবজি যেভাবে করোনামুক্ত রাখবেন আড়াই হাজার টাকা করে পাবে ৫০ লাখ পরিবার ১ কোটি লিটার ‘বিয়ার’ ড্রেনে ফেলে দিচ্ছে ফ্রান্স করোনা পরীক্ষায় ৩০ হাজার ‍কিট দিলো ভারত

পরমাণু সমঝোতায় ফিরে আসতে চায় আমেরিকা

| ১৮ বৈশাখ ১৪২৭ | Friday, May 1, 2020

জাতিসংঘে নিযুক্ত ইরানের স্থায়ী প্রতিনিধি বলেছেন, ইরানের বিরুদ্ধে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ানোর জন্য মার্কিন প্রচেষ্টা নিরাপত্তা পরিষদের ২২৩১ নম্বর প্রস্তাবের লঙ্ঘন। আমেরিকা এখনো পরমাণু চুক্তিতে আছে বলে ওয়াশিংটনের দাবিকে শ্রেষ্ঠ কৌতুক হিসেবে অভিহিত করে তিনি বলেছেন, পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গিয়ে আমেরিকা নিরাপত্তা পরিষদের ২২৩১ নম্বর প্রস্তাব লঙ্ঘন করা ছাড়াও পরমাণু সমঝোতায় উল্লেখিত নিজের প্রতিশ্রুতিও লঙ্ঘন করেছে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও আমেরিকাকে পরমাণু সমঝোতার অংশীদার দাবি করে ইরানের ওপর পাঁচ বছরের অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও তা নবায়নের জন্য যে চেষ্টা চালাচ্ছেন তা অন্য দেশের পক্ষ থেকে তীব্র বিরোধিতার সম্মুখীন হয়েছেন।

পম্পেও দায়িত্ব লাভের পর থেকেই ইরানের বিরুদ্ধে তার বিদ্বেষের প্রমাণ দিয়েছেন। পরমাণু সমঝোতা স্বাক্ষরের দুই বছর পর আমেরিকা থেকে বেরিয়ে গিয়ে সর্বোচ্চ চাপ সৃষ্টি করলেও ইরানকে নতজানু করতে ব্যর্থ হয়েছে। এ অবস্থায় আগামী ১৮ অক্টোবর ইরানের বিরুদ্ধে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হয়ে আসায় ফের তা নবায়নের জন্য আমেরিকা উঠেপড়ে লেগেছে। এ থেকে বোঝা যায় ইরানকে বাগে আনতে ব্যর্থ হওয়ার পর হোয়াইট হাউজের কর্মকর্তারা হতাশ হয়ে পড়েছেন এবং তাদের বর্তমান আচরণের কোনো আইনগত ভিত্তি নেই।

২০১৮ সালে আমেরিকা পরমাণু সমঝোতা থেকে পুরোপুরি বেরিয়ে গিয়ে কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপের মাধ্যমে ইরানের ওপর সর্বোচ্চ চাপ সৃষ্টির চেষ্টা করে আসছে যাতে ওয়াশিংটন তাদের লক্ষ্যে পৌঁছতে পারে। আমেরিকা ইরানের ওপর সর্বোচ্চ চাপ সৃষ্টির নীতি ব্যর্থ হওয়ার পর এখন নিজেকে পরমাণু সমঝোতার অংশীদার বলে দাবি করছে এবং নিরাপত্তা পরিষদের ২২৩১ নম্বর প্রস্তাবকে ব্যবহার করে ইরানবিরোধী অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখার চেষ্টা করছে।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাওয়াদ জারিফ বলেছেন, পরমাণু সমঝোতার অংশীদার দাবি করে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেওর বক্তব্যের কথা উল্লেখ করে আমেরিকাকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, অলীক স্বপ্ন দেখা বাদ দিন এবং ইরানের জনগণ নিজেরাই নিজেদের ভাগ্য নির্ধারণ করবে।

এদিকে, ইরানের পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে যাওয়া আমেরিকা তেহরানের ওপর অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখতে আবার পরমাণু সমঝোতায় ফিরে আসতে পারে বলে একজন সাবেক মার্কিন কর্মকর্তা যে দাবি করেছেন তা প্রত্যাখ্যান করেছে রাশিয়া। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও পরমাণু সমঝোতারই ‘মশে ম্যাকানিজম’ নামের একটি ধারা ব্যবহার করে ইরানের ওপর থেকে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের বিষয়টি ঠেকিয়ে দিতে চান। এ সম্পর্কে সাবেক মার্কিন পদস্থ কর্মকর্তা রিচার্ড গোল্ডবার্গ বলেছেন, যে দেশটি দুই বছর আগে আনুষ্ঠানিকভাবে পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গেছে তার পক্ষে তাতে ফিরে এসে সেই সমঝোতারই একটি ধারা ব্যবহার করা সম্ভব নয়। উলিয়ানোভ বলেন, আমেরিকা মশে ম্যাকানিজম চালু করার জন্য পরমাণু সমঝোতায় ফিরে আসার যে কথা বলছে তা অত্যন্ত লজ্জাজনক ও স্বার্থান্বেষী আচরণ। #