সকল শিরোনাম

রূপগঞ্জে পুলিশ পরিদর্শকসহ ব্যবসায়ীকে হানজালা বাহিনীর হুমকি, ইটপাটকেল নিক্ষেপে দুই পুলিশ সদস্য আহত রূপগঞ্জে মন্ত্রীর পক্ষে ছাত্রলীগ নেতারদের বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে মামলা বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হলেন আহমদে জামাল ঢাকায় বিয়ে উৎসব, অংশ নেবেন কারা? ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই দেশে ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু গোটা বিশ্বই ধ্বংস হবে মশা মারার ওষুধ কতটা কার্যকর? সশস্ত্র বিক্ষোভের শঙ্কায় যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সতর্কতা বিটিএমসিতে অনিয়ম ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে দল ঘোষণা আমাকে বিয়ে করবে? শ্রীলেখা ক্রেডিট কার্ডের সর্বোচ্চ সুদ ২০ শতাংশ নির্ধারণ ১১৬৮ নমুনায় ৮৮ আক্রান্ত করোনা কেড়ে নিল আরও ২১ প্রাণ বার্সেলোনার সভাপতি নির্বাচন স্থগিত ভোটে সক্রিয় ছিল না বিএনপি টাকা যাঁর, টিকা তাঁর এমন যেন না হয়… ওবায়দুল কাদেরের ভাই কাদের মির্জা জয়ী মানুষের দারিদ্র্যের অন্যতম কারণ উপার্জনে সুযোগের সীমাবদ্ধতা আমদানি বৃদ্ধিতে অর্থনীতিতে স্বস্তির ইঙ্গিত তৈরি পোশাকের ক্রেতাদের এগিয়ে আসার আহ্বান বাণিজ্যমন্ত্রীর স্বামীর প্ররোচনায় স্ত্রীর আত্মহত্যা করোনা ভ্যাকসিন জানুয়ারিতেই পাব ॥ স্বাস্থ্যমন্ত্রী হোটেলে আটকে রেখে তরুণীকে ২ বন্ধুর পালাক্রমে ধর্ষণ ১৯ জানুয়ারী থেকে যুক্তরাজ্যে সব ধরণের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা


অবশেষে এলাহাবাদে আজানের অনুমতি

| ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ | Saturday, May 16, 2020

 

ভারতের উত্তর প্রদেশের এলাহাবাদের তিন জেলায় মুখে আজান দেওয়ার অনুমতি দিয়েছেন আদালত। কারণ মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স.) আজান দেওয়ার জন্য মাইক কিংবা লাউড স্পিকার ব্যবহারের কথা কখনো বলেননি। গতকাল শুক্রবার এলাহাবাদ হাইকোর্ট থেকে গাজীপুর, হাথরাস এবং ফাররুখাবাদে মসজিদের মুয়াজ্জিনদের মৌখিকভাবে আজান দেওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছে বলে সংবাদ প্রকাশ করেছে ভারতীয় বার্তা সংস্থা পিটিআই এবং সংবাদমাধ্যম নিউজ-১৮

লকডাউনের কারণে রমজান মাসে গাজীপুর, হাথরাস এবং ফাররুখাবাদ জেলায় মুয়াজ্জিনদের মৌখিক আজান না দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল এসব জেলার ম্যাজিস্ট্রেট। তাই এই আদেশের বিরুদ্ধে এলাহাবাদ হাইকোর্টে অভিযোগ করেন গাজীপুরের বিএসপি এমপি আফজাল আনসারি এবং প্রবীন কংগ্রেস নেতা সালমান খুরশিদ।

আজানের বিষয়ে জেলা ম্যাজিস্ট্রের আদেশের বিরুদ্ধে তাদের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল শুক্রবার বিচারক শশিকান্ত গুপ্তা ও অজত কুমারের বেঞ্চ এই রায় দিয়েছে।

ওই বেঞ্চ মুসলিমদের এই আবেদন মঞ্জুর করে বলেছে, আজান ইসলামের একটি অপরিহার্য ও অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হতে পারে। তবে লাউড স্পিকার বা অন্যান্য শব্দ-পরিবর্ধক যন্ত্রের মাধ্যমে আজান দেওয়া ধর্মের একটি অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হিসেবে বলা যায় না। তাই আমাদের বিবেচ্য মতে, মুয়াজ্জিন মসজিদগুলোর মিনার থেকে মানব কণ্ঠে কোনো শব্দ-পরিবর্ধক যন্ত্র ব্যবহার না করে আজান দিতে পারবেন।