সকল শিরোনাম

দূষিত বায়ুর দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান দ্বিতীয়! ৭ মার্চের জনসভা সফল করতে নানা উদ্যোগ আ.লীগের দেশে আগাম নির্বাচনের সম্ভাবনা দেখছেন এরশাদ আমার কর্মকান্ডে মানুষের ক্ষতি হলে অবসর নিব ডিসেম্বর নয়, এখনই পদত্যাগ করুন: অর্থমন্ত্রীকে বাবলু বিএনপি হচ্ছে রাজনীতির বিষবৃক্ষ, সংসদে তথ্যমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ‘কথাবার্তা মহাসড়কের মতো বেসামাল’: রিজভী অযত্ন অবহেলায় অরক্ষিত ডেমরার শহীদ মিনার `শেখ হাসিনার হাত থেকে পার পাওয়ার উপায় নেই কারও’ রাজনৈতিক দলগুলো ছাত্রদের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে: এরশাদ খালেদা জিয়ার বিষয়ে কিছুই করার নেই: ইসি বিশ্ব ভালবাসা দিবসে যানবাহন চালকদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানালো রামপুরা ট্রাফিক জোন ম্যাডামকে কোনো ডিভিশন দেওয়া হয়নি: মওদুদ ৩২ ধারা বাতিল না করলে তথ্যমন্ত্রী পদত্যাগ চান সাংবাদিক নেতারা খালেদা জিয়াকে একটি স্যাঁতসেঁতে ঘরে একা রাখা হয়েছে, এটা অমানবিক : ফখরুল ক্ষমতার অপব্যবহার হয়েছে, টাকা আত্মসাৎ হয়নি : ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বিএনপির আন্দোলন ও পুলিশের অবস্থান ইতিবাচক : ড. বদিউল আলম মজুমদার যে কারণে বিএনপির আন্দোলনে তেজ নেই আসছে তৌহিদ এলাহীর ‘বইকাটা’ বিদেশি গণমাধ্যমগুলোতে ব্রিফ করছে বিএনপি রাজধানীর প্রবেশদ্বার ডেমরায় নিত্য যানজট : ট্রাফিকের নানা উদ্যোগ দেশে এখন বন্য আইন চলছে : মান্না একজন দন্ডপ্রাপ্ত ব্যাক্তিকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসনের দায়িত্ব দিয়েছে বিএনপি: কাদের আপিল করলে খালেদার সাজা বেড়ে ১০বছর হতে পারে: নৌমন্ত্রী


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

দূষিত বায়ুর দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান দ্বিতীয়! অযত্ন অবহেলায় অরক্ষিত ডেমরার শহীদ মিনার `শেখ হাসিনার হাত থেকে পার পাওয়ার উপায় নেই কারও’ বিশ্ব ভালবাসা দিবসে যানবাহন চালকদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানালো রামপুরা ট্রাফিক জোন একজন দন্ডপ্রাপ্ত ব্যাক্তিকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসনের দায়িত্ব দিয়েছে বিএনপি: কাদের গ্যাস-বিদ্যুৎ সংকটে ব্যাহত টেক্সটাইল কারখানার উৎপাদন ‘ক্ষমতায় থাকলে সব মাফ আর বিরোধী দলে থাকলেই সব অপরাধ’ রূপগঞ্জে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল শাহরুখের বাড়ি দখলে নিল সরকার পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির পেছনে সিন্ডিকেট ছিল না স্বপ্নবাজের স্বপ্ন… আয় থেকে জীবনের শিক্ষা আবারো শুভেচ্ছাদূত মিম সামরিক ব্যয়ে বিশ্বের শীর্ষ ১০ দেশ

গ্যাস-বিদ্যুৎ সংকটে ব্যাহত টেক্সটাইল কারখানার উৎপাদন

ছবি স্লাইড, জাতীয় সংবাদ, সকল শিরোনাম, সর্বশেষ সংবাদ | ২৭ মাঘ ১৪২৪ | Friday, February 9, 2018

নিউজ-বাংলাদেশ, ঢাকা: গ্যাস-বিদ্যুৎ সংকটের কারণে বেশিরভাগ টেক্সটাইল কারখানার উৎপাদন ক্ষমতা ব্যহত হচ্ছে। ফলে রপ্তানির অর্থ পাওয়ার ক্ষেত্রে দীর্ঘসূত্র প্রক্রিয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বেশিরভাগ উদ্যোক্তা। আর এই সমস্যা দ্রুত সমাধান করা না হলে বিশ্ববাজারের প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়ার আশঙ্কা ব্যবসায়ীদের।

নব্বই দশকের শুরুর দিকে দেশে বিকাশ শুরু হয় রপ্তানিমুখী টেক্সটাইল খাতের। বর্তমানে কারখানার সংখ্যা প্রায় ১৫’শ এবং খাতে রপ্তানির পরিমাণ ১৫ বিলিয়ন ডলার। আর এর নিট পোশাক তৈরিতে ৯৫ ভাগ এবং ওভেনে ৩৫ ভাগ চাহিদা পূরণ করে দেশীয় টেক্সটাইল খাত।

উদ্যোক্তারা বলেন, এই খাতে আরও বিনিয়োগের সুযোগ থাকলেও চাহিদামতো গ্যাস-বিদ্যুৎ না পাওয়ায় উৎসাহী হচ্ছেন না অনেকে। চালু কারখানাগুলোয় উৎপাদন ক্ষমতার পুরোপুরি ব্যবহার হচ্ছে না।

বিটিএমএ এর সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আলী খোকন বলেন, গত ১০ বছর বাংলাদেশের গ্যাস ও বিদ্যুতের সংকট থাকার কারণে অনেক শিল্পই গড়ে ওঠেনি।

সিপিডি অতিরিক্ত গবেষণা পরিচালক খন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেম বলেন, টেক্সটাইল এখন বেশি কটন বেস টেক্সটাইলের উপর বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে। তবে তাদের অন্যান্য জিনিসের উপরও গুরুত্ব দেওয়া উচিত। বিশ্ববাজারে টিকে থাকতে পণ্যে বৈচিত্র্য আনার দরকার আছে। ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখে এখন থেকেই পরিবেশবান্ধব কারখানা গড়ে তুলতে হবে। টেক্সটাইল খাতের উচ্চ পদে লোকবলের জন্য এখনো রয়েছে বিদেশ নির্ভরতা। তাই এই ঘাটতি কাটিয়ে উঠতে প্রশিক্ষণে বিনিয়োগ বাড়াতে হবে।