সকল শিরোনাম

৥ সড়ক দুর্ঘটনা : মায়া কান্নায় কি লাভ? ডেমরায় ট্রাফিকের ঝটিকা অভিযান ও অপরূত কিশোরী উদ্ধার এমপি হতে শেষ চেষ্টায় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা যারাই ক্ষমতায় আসে তারাই ক্ষমতার অপপ্রয়োগ করে: ড. কামাল রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসনে ৫টি খাল খনন করবে ওয়াসা যৌন হয়রানি প্রতিরোধে খসড়া আইনের প্রস্তাব সিসি ক্যামেরার আওতায় রামপুরা ট্রাফিক জোন ঢাকা-৫ আসনে বিএনপি-আ’লীগে একাধিক প্রার্থী, সুবিধাজন অবস্থানে জাপা ফখরুলের বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিলেন রিজভী কালবৈশাখীর কারণে রূপালী ব্যা‍ংকের লিখিত পরীক্ষা বাতিল খালেদাকে জেলে রেখে নির্বাচনের কথা ভাবতে পারে না বিএনপি আগামী নির্বাচনে অংশ গ্রহন না করলে বিএনপি অস্থিত্ব সংকটে পড়বে খালেদা জিয়াকে বাদ দিয়ে জাতীয় নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হতে পারে না নারী ও শিশু নির্যাতন কমছে না কেন? ১৫ ও ১৬ এপ্রিল ঢাকায় বিপিও সামিট উন্নয়নে সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে : মেনন সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন আশ্বাসের পরও চালের দাম কমছে না অস্বস্তিতে ক্রেতারা স্বাধীনতার ইতিহাস নতুন প্রজন্মের মাঝে জাগ্রত করতে মাতুয়াইলে আলোচনা সভা উন্নয়নের নামে নদী খাল ভরাট করা যাবে না: প্রধানমন্ত্রী এখনও ৩৫ হাজার কোটি টাকা ফেরৎ দেয়নি পাকিস্তান! উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে আত্মহত্যা আবারো বাড়ছে গ্যাসের দাম মুচলেকা দিলেই সময় পাবে বিজিএমইএ ৪টি প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃত করবেন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার বিকল্পে জোবাইদা রহমান, আ.লীগেও ভাগ বসাতে তৎপর


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

রোহিঙ্গাদের বিতাড়িত করতে আন্দোলনে নেমেছে কাশ্মীরের স্থানীয়রা জম্মু কাশ্মীরে ভারতীয় সেনাদের গুলিতে নিহত ৬ সামরিক ব্যয়ে বিশ্বের শীর্ষ ১০ দেশ চীনা সেনাবাহিনীকে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুতির নির্দেশ আড়াই হাজার কোটি রুপি কর ফাঁকি দিয়েছে পাঁচ অপারেটর ইরানে সংঘর্ষে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে ‘শত্রুদের’ দুষলেন খামেনি ট্রাম্পের ‘জবাব’ দিল চীন! পশ্চিমকে বাঁচান, আহ্বান ট্রাম্পের কিভাবে রাজনৈতিক নবজাতক থেকে ফ্রান্সের সর্বকনিষ্ঠ প্রেসিডেন্ট হলেন ম্যাক্রোঁ ফ্রান্সের নতুন প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ লন্ডন হামলা স্থায়ী হয়েছিল ৮২ সেকেন্ড সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘিত হলে নির্মম হামলা করবে উত্তর কোরিয়া উচ্চ ক্ষমতার রকেট-ইঞ্জিন পরীক্ষা চালাল উত্তর কোরিয়া পূর্ব চীন সাগরে যুক্তরাষ্ট্র ও জাপানের নৌ-মহড়া কাবুলে সামরিক হাসপাতালে আইএসের হামলা, নিহত ৩০

ইরানে সংঘর্ষে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে ‘শত্রুদের’ দুষলেন খামেনি

আন্তর্জাতিক, সকল শিরোনাম | ২০ পৌষ ১৪২৪ | Wednesday, January 3, 2018

ইরানে সংঘর্ষে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে ‘শত্রুদের’ দুষলেন খামেনিসরকারবিরোধী প্রতিবাদে উত্তাল গোটা ইরান। গত সপ্তাহে শুরু হওয়া এ প্রতিবাদে এখন পর্যন্ত নিরাপত্তা বাহিনীর একজনসহ অন্তত ১৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এছাড়া গত তিনদিনে রাজধানী তেহরানে অন্তত ৪৫০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে এসব সংঘর্ষের জন্য ইরানের ‘শত্রুদের’ দায়ী করেছেন দেশটির সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি। খবর রয়টার্স, আল জাজিরা ও এএফপি।

মঙ্গলবার কোয়াদারিজান এলাকার একটি পুলিশ ফাঁড়িতে হামলার সময় অন্তত ছয়জন বিক্ষোভকারী নিহত হওয়ার কথা নিশ্চিত করেছে ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন। রাষ্ট্রীয় সম্প্রচার সংস্থাটি জানায়, দাঙ্গাকারীরা অস্ত্র লুটের উদ্দেশ্যে পুলিশ ফাঁড়িতে হামলা চালিয়েছিল। খামেনি শহরে ওই হামলায় অন্যদের মধ্যে ১১ বছর বয়সী এক বালক ও ২০ বছর বয়সী এক তরুণও ছিল।

এছাড়া আরো কিছু প্রতিবেদনে বলা হয়, রাজধানী তেহরান থেকে ৩৫০ কিলোমিটার দক্ষিণে নাজাফাবাদ এলাকায় হামলাকারীরা একজন ইরানিয়ান রেভল্যুশনারি গার্ড কর্পস (আইআরজিসি) সৈনিককে শিকারের বন্দুক দিয়ে আক্রমণ করে।

আল জাজিরা জানায়, ছয়দিনের বিক্ষোভে অন্তত ২০ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া তেহরানের ডেপুটি গভর্নর প্রায় ৪৫০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন। তিনি আরো জানান, এদের ২০০ জনকে শনিবার, ১৫০ জনকে রোববার এবং বাকি ১০০ জনকে সোমবার গ্রেফতার করা হয়েছে। ইরানের অন্যান্য শহরের আটককৃতদের সংখ্যা নিশ্চিত করা যায়নি।

তেহরান পুলিশ সোমবার সন্ধ্যায় টিয়ার গ্যাস ও জলকামান ব্যবহার করে এনঘেলেব স্কোয়ারের একটি জমায়েতকে ছত্রভঙ্গ করার প্রচেষ্টা চালায়। তবে টিয়ার গ্যাসের আঘাতে রক্তাভ চোখ নিয়ে এক তরুণ প্রতিবাদকারী মিলাদ বলেন, ‘চুপ থাকার চেয়ে এটি শ্রেয়।’ অন্যদিকে বিক্ষোভে অংশ না নেয়া ৫২ বছরের আসলান বলেন, সরকারের উচিত তাদের (প্রতিবাদকারী) একটি সুযোগ দেয়া, যাতে তারা দেখাতে পারে কেন তারা সুখী নয়।

তবে দেশটির সর্বোচ্চ নেতা খামেনি প্রথমবারের মতো এ ঘটনা নিয়ে বক্তব্য দিয়েছেন। তিনি বলেন, সম্প্র্রতি ইরানের শত্রুরা নগদ অর্থ, অস্ত্র, রাজনৈতিক ও বুদ্ধিবৃত্তিক যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে ইসলামিক রিপাবলিকটিতে অশান্তি তৈরি করতে চাইছে।

নিজস্ব ওয়েবসাইটে খামেনি বলেন, ‘যখন সঠিক সময় আসবে’ তখন তিনি সাম্প্রতিক ঘটনাবলি নিয়ে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন।

খামেনি কোনো শত্রুর নাম উল্লেখ না করলেও সুপ্রিম ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের সেক্রেটারি আলি শামখানি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন ও সৌদি আরব ইরানের সাম্প্র্রতিক দাঙ্গার পেছনে ভূমিকা পালন করেছে।

বৈরুতভিত্তিক আল মায়িদান টিভির তাসনিম নিউজের সঙ্গে এক সাক্ষাত্কারে শামখানির বরাত দিয়ে বলা হয়, সৌদি আরব ইরানের অপ্রত্যাশিত জবাব পাবে এবং তারা জানে সেটি কতটা গুরুতর হবে।

তেহরানের রেভল্যুশনারি আদালতের প্রধান মুসা গাজানফারাবাদি গতকাল প্রতিবাদকারীদের সতর্ক করে দিয়ে বলেন, যাদের গ্রেফতার করা হয়েছে, তারা কঠিন শাস্তির মুখোমুখি হবে।

বিচার বিভাগের একজন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে মেহের নিউজ জানায়, ইরানের চতুর্থ বৃহত্তম শহর কারাজে প্রতিবাদকারীদের বেশ কয়েকজন নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গাজানফারাবাদি বলেন, গ্রেফতারকৃতদের শিগগিরই বিচারের মুখোমুখি করা হবে এবং নেতৃস্থানীয়দের বিরুদ্ধে ‘মোহারেবাহ’র মতো গুরুতর অভিযোগ আনা হবে। ইসলামিক পরিভাষায় ‘মোহারেবাহ’ শব্দের অর্থ ঈশ্বরের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করা, যার শাস্তি মৃত্যুদণ্ড।

গত ২৮ ডিসেম্বর ইরানের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মাসাদে মূলত জীবনযাত্রার ব্যয় বৃদ্ধি এবং অর্থনীতির সঙ্গিন অবস্থার বিরুদ্ধে জনতা এ প্রতিবাদ কর্মসূচির সূচনা করে। লেখক ও একাডেমিক সাদেঘ জিবাকালাম বলেন, আমরা পূর্বাভাস করতে পারব না কখন এ প্রতিবাদ শেষ হবে, তবে প্রতিবাদকারীরা যারা ক্ষমতায় আছে তাদের নাড়িয়ে দেবে এবং জনতার দাবিকে গুরুত্ব দিতে তাদের বাধ্য করবে।



Share