সকল শিরোনাম

৥ সড়ক দুর্ঘটনা : মায়া কান্নায় কি লাভ? ডেমরায় ট্রাফিকের ঝটিকা অভিযান ও অপরূত কিশোরী উদ্ধার এমপি হতে শেষ চেষ্টায় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা যারাই ক্ষমতায় আসে তারাই ক্ষমতার অপপ্রয়োগ করে: ড. কামাল রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসনে ৫টি খাল খনন করবে ওয়াসা যৌন হয়রানি প্রতিরোধে খসড়া আইনের প্রস্তাব সিসি ক্যামেরার আওতায় রামপুরা ট্রাফিক জোন ঢাকা-৫ আসনে বিএনপি-আ’লীগে একাধিক প্রার্থী, সুবিধাজন অবস্থানে জাপা ফখরুলের বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিলেন রিজভী কালবৈশাখীর কারণে রূপালী ব্যা‍ংকের লিখিত পরীক্ষা বাতিল খালেদাকে জেলে রেখে নির্বাচনের কথা ভাবতে পারে না বিএনপি আগামী নির্বাচনে অংশ গ্রহন না করলে বিএনপি অস্থিত্ব সংকটে পড়বে খালেদা জিয়াকে বাদ দিয়ে জাতীয় নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হতে পারে না নারী ও শিশু নির্যাতন কমছে না কেন? ১৫ ও ১৬ এপ্রিল ঢাকায় বিপিও সামিট উন্নয়নে সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে : মেনন সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন আশ্বাসের পরও চালের দাম কমছে না অস্বস্তিতে ক্রেতারা স্বাধীনতার ইতিহাস নতুন প্রজন্মের মাঝে জাগ্রত করতে মাতুয়াইলে আলোচনা সভা উন্নয়নের নামে নদী খাল ভরাট করা যাবে না: প্রধানমন্ত্রী এখনও ৩৫ হাজার কোটি টাকা ফেরৎ দেয়নি পাকিস্তান! উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে আত্মহত্যা আবারো বাড়ছে গ্যাসের দাম মুচলেকা দিলেই সময় পাবে বিজিএমইএ ৪টি প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃত করবেন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার বিকল্পে জোবাইদা রহমান, আ.লীগেও ভাগ বসাতে তৎপর


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

সিসি ক্যামেরার আওতায় রামপুরা ট্রাফিক জোন বিভিন্ন কলাকৌশলে বেগম জিয়ার মুক্তিকে বিলম্বিত করা হচ্ছে : ফখরুল খালেদা জিয়া দেশনেত্রী থেকে দেশের মানুষের মা হয়েছেন : নজরুল ইসলাম রাজধানীতে অবৈধভাবে পানি ব্যবসার বিরুদ্ধে র‌্যাবের অভিযান জরিমানা স্থগিত, জামিন শুনানি রোববার অস্ত্র ও জিহাদি বইসহ ৪ শিবিরকর্মী আটক তালাক দেয়ায় গৃহবধূর বিষপান প্রযুক্তির কুপ্রভাব থেকে মুক্ত থাকতে ৫ পরামর্শ পুরুষদের ডায়াবেটিসের ১০ উপসর্গ মহাপরিকল্পনা নিয়ে মাঠে নামছে আ’লীগ আগামী নির্বাচনে দুর্নীতিবাজ এমপিরা মনোয়ন পাবেন না : কাদের বেওয়ারিশ পরিচয়ে জঙ্গি মারজান ও সাদ্দামের দাফন রূপগঞ্জে বেতন-ভাতার দাবিতে এম,পি’র কাছে স্বারকলিপি দিলেন পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা রায় ফাঁসের মামলা : হুম্মামের জামিন নাসিক নির্বাচন : আইভীর জন্যেও অগ্নিপরীক্ষা

প্রযুক্তির কুপ্রভাব থেকে মুক্ত থাকতে ৫ পরামর্শ

সকাল-বিকাল | ২০ পৌষ ১৪২৪ | Wednesday, January 3, 2018

প্রযুক্তির কুপ্রভাব থেকে মুক্ত থাকতে ৫ পরামর্শ১. ঘুমাতে যাওয়ার আগে সব ধররের ডিভাইস বন্ধ করে রাখুন
ঘুমাতে যাওয়ার আগে ইউটিউবে আরেকটু ভিডিও দেখা বা আরেকটু ফেসবুকিং করতে অনেকেরই মন চায়। বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই প্রবণতার ফলে আপনার যে ঘুম কম হচ্ছে সেটিই নয়, বরং আপনি যেটুকু সময় ঘুমাচ্ছেন, সেটুকু সময়ও ভালোভাবে ঘুমাতে পারছেন না। ডিভাইস অন থাকলে তা প্রতি মুহূর্তে আপনার মাথায় ঘুরবে, কিংবা মনিটরের অলো চোখে পড়বে। আদর্শ ঘুমের জন্য যা অবশ্যই পরিহার করতে হবে।
এসব সমস্যা সমাধানেও ‘লাক্স ফর অ্যান্ড্রয়েড’ কিংবা ‘নিউ নাইট শিফট মোড’ নামের বিভিন্ন অ্যাপ বের হয়েছে। তবে আপনি যদি সত্যিই ঘুমানোর সময় প্রযুক্তি থেকে দূরে থাকতে চান, তাহলে এ ধরনের সব ডিভাইস বন্ধ রাখুন। বরং আপনার পছন্দের একটি বই (ইন্টারনেটে নয়) হাতে নিয়ে পড়তে পড়তে ঘুমিয়ে পড়তে পারেন।
২. একবারে একটি কাজই করুন
এখন ইন্টারনেটে নানা ধরনের কাজ করতে পারছে মানুষ। ইন্টারনেট খোলা রাখা মানে পুরো দুনিয়া আপনার সামনে উন্মুক্ত রাখা। ল্যাপটপে বা পিসিতে কাজ করার সময় আপনার সামনে একই সাথে অনেকগুলো কাজ থাকতে পারে। আপনিও হয়তো চাপ কমাতে মেইল লেখার পাশাপাশি ফেসবুকে একটু গুরুত্বপূর্ণ আলোচনায় অংশ নিচ্ছেন। কিংবা অন্য জায়গায় কাউকে গুরুত্বপূর্ণ দিক নির্দেশনা দিচ্ছেন। আপনার মনে হতে পারে আপনি একসাথে অনেকগুলো কাজ করছেন, আপনি অনেক উত্পাদনক্ষম। কিন্তু বিষয়টি মোটেও তা নয়। ধরুন, আপনি একটি উত্তেজনাকর ফুটবল ম্যাচ দেখছেন। কিন্তু কিছুক্ষণ পরপর ফেসবুকে সেটির আপডেট দিচ্ছেন বা ফেসবুকিং করছেন, তাহলে কী ম্যাচের সঠিক মজাটা আপনি পাবেন? আপনি একবারে একটি কাজ করলে যতটা সফলতার সঙ্গে করতে পারবেন, অনেকগুলো কাজ এক সঙ্গে করলে কোনোটিতেই আশানুরূপ ফলাফল নাও পেতে পারেন। সফলভাবে অনেকগুলো কাজ করতে চাইলে সবগুলো কাজের জন্য আলাদা অলাদাভাবে সময় ভাগ করে নিন। এতে আপনার মস্তিষ্কও প্রতিটি বিষয়ের উপর আলাদাভাবে কাজ করতে পারবে।
৩. স্ক্রিন সবসময় আই লেভেলে রাখুন
মাথা নিচের দিকে ঝুঁকিয়ে মোবাইল ব্যবহার করা কিংবা সামনের দিকে ঝুঁকে ল্যাপটপ ব্যবহার করার কারণে অনেক সময় শরীরে নানা সমস্যা দেখা দেয়। চোখব্যথা, মাথাব্যথা, কোমর ব্যথা- স্ক্রিন আসক্ত মানুষের জন্য এসব সমস্যা এখন নিয়মিতই হয়ে গেছে। সব সময় আই লেভেলে স্ক্রিন রেখে কাজ করাটা হয়তো সম্ভব হবে না, তবে আপনি এটি করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করবেন। এতে আপনার চোখ এবং স্পাইনের উপর চাপ অনেক কমবে। হাঁটতে হাঁটতে মেসেজিং বন্ধ করুন।
অফিস বা বাসায় আপনার মনিটর যদি আই লেভেলে না থাকে, তাহলে আলাদা স্ট্যান্ড নিন। ল্যাপটপ ব্যাবহার করলে আলাদা কীবোর্ড ব্যাবহার করে ল্যাপটপ দূরে রেখে তারপর কাজ করুন।
৪. সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার থেকে কিছুটা সময় বিরত থাকুন
ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রামসহ অন্যান্য সামাজিক মাধ্যম বন্ধুদের কাছ থেকে নতুন কোনো আপডেটের তাড়নায় আপনাকে সবসময় টানবে। আপনি গুরুত্বপূর্ণ একটা কাজ করছেন, কিংবা বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিচ্ছেন কিংবা বিশ্রাম নিচ্ছেন, কিন্তু বারবার ফেসবুকে ঢুকে ভার্চুয়াল বন্ধুদের আপডেট চেক করতে মন চাচ্ছে, এটা হরহামেশায়ই অধিকাংশের ক্ষেত্রে হয়। সামাজিক মাধ্যম থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে না, কিন্তু আপনার সময় ঠিকভাবে বিন্যস্ত করতে জনাতে হবে। যখন যে কাজটি করবেন, তখন শুধুমাত্র সে কাজটিউ করুন। বিশ্রামের সময় ফেসবুক নয়, ফেসবুকিংয়ের সময়েও অন্য কাজ নয়।
৫. অনলাইন অ্যাকাউন্ট সবসময় নিরাপদ রাখুন
প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধই উত্তম। আপনার ইন্টারনেট অ্যাকাউন্টগুলো ম্যানেজের ক্ষেত্রে পুরনো এ কথা মেনে চলুন। অ্যাকাউন্টের সামান্য নিরাপত্তা দুর্বলতার কারণে আপনার অনেক বড় ক্ষতি হয়ে যেতে পারে বা আপনাকে অনেক ভুগতে হতে পারে। তাই ইন্টারনেট অ্যাকাউন্টগুলোতে সবসময় প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা নিশ্চিত করে রাখুন। আর সব ব্যক্তিগত তথ্য ইন্টারনেটে শেয়ার করাও উচিত নয়। ব্যক্তিগত তথ্য যত কম ইন্টারনেটে শেয়ার করবেন, জীবন তত নিরাপদ থাকবে।