সর্বশেষ সংবাদ: বিজ্ঞানমনস্ক জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মানে শিক্ষকদের ভূমিকা শীর্ষক কর্মশালা নির্বাচনী মাঠে একঝাঁক তরুণ মনোনয়নপ্রত্যাশী খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা আগের চেয়েও উদ্বেগজনক নির্বাচনী প্রচারণায় ঘুম নেই ঢাকা দক্ষিনের প্রার্থীদের ৥ সড়ক দুর্ঘটনা : মায়া কান্নায় কি লাভ? ডেমরায় ট্রাফিকের ঝটিকা অভিযান ও অপরূত কিশোরী উদ্ধার সিসি ক্যামেরার আওতায় রামপুরা ট্রাফিক জোন ঢাকা-৫ আসনে বিএনপি-আ’লীগে একাধিক প্রার্থী, সুবিধাজন অবস্থানে জাপা খালেদাকে জেলে রেখে নির্বাচনের কথা ভাবতে পারে না বিএনপি আগামী নির্বাচনে অংশ গ্রহন না করলে বিএনপি অস্থিত্ব সংকটে পড়বে

সকল শিরোনাম

দু:স্থদের মাঝে বিসিএস পুলিশ পরিবারের ঈদ বস্ত্র বিতরণ ৬ কারণে বিশ্বকাপ জিতবে ব্রাজিল সবার জন্য স্বাস্থ্য প্রধানমন্ত্রীর কানাডা সফর ৬ জুন  দ্রব্যমূল্য বাড়ার মাস কী রমজান! সবকিছু স্বপ্নের মতো মনে হচ্ছে লিখিত স্থগিতাদেশ পেলে গাজীপুর সিটি নির্বাচনের জন্য আপিল করা হবে : অ্যাটর্নি জেনারেল সৌহার্দ্যপূর্ণ আন্তঃবাহিনী সম্পর্ক বজায় রাখার আহবান আইজিপির গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন ২৬ জুন বিজ্ঞানমনস্ক জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মানে শিক্ষকদের ভূমিকা শীর্ষক কর্মশালা নির্বাচনী মাঠে একঝাঁক তরুণ মনোনয়নপ্রত্যাশী দলের নয়, কাজের লোককে ভোট দিন: ওবায়দুল কাদের খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা আগের চেয়েও উদ্বেগজনক নির্বাচনী প্রচারণায় ঘুম নেই ঢাকা দক্ষিনের প্রার্থীদের ৥ সড়ক দুর্ঘটনা : মায়া কান্নায় কি লাভ? ডেমরায় ট্রাফিকের ঝটিকা অভিযান ও অপরূত কিশোরী উদ্ধার এমপি হতে শেষ চেষ্টায় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা যারাই ক্ষমতায় আসে তারাই ক্ষমতার অপপ্রয়োগ করে: ড. কামাল রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসনে ৫টি খাল খনন করবে ওয়াসা যৌন হয়রানি প্রতিরোধে খসড়া আইনের প্রস্তাব সিসি ক্যামেরার আওতায় রামপুরা ট্রাফিক জোন ঢাকা-৫ আসনে বিএনপি-আ’লীগে একাধিক প্রার্থী, সুবিধাজন অবস্থানে জাপা ফখরুলের বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিলেন রিজভী কালবৈশাখীর কারণে রূপালী ব্যা‍ংকের লিখিত পরীক্ষা বাতিল খালেদাকে জেলে রেখে নির্বাচনের কথা ভাবতে পারে না বিএনপি


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

প্রধানমন্ত্রীর কানাডা সফর ৬ জুন হাসান ইন্তিসার এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়েছে লিখিত স্থগিতাদেশ পেলে গাজীপুর সিটি নির্বাচনের জন্য আপিল করা হবে : অ্যাটর্নি জেনারেল সৌহার্দ্যপূর্ণ আন্তঃবাহিনী সম্পর্ক বজায় রাখার আহবান আইজিপির নির্বাচনী মাঠে একঝাঁক তরুণ মনোনয়নপ্রত্যাশী খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা আগের চেয়েও উদ্বেগজনক ৥ সড়ক দুর্ঘটনা : মায়া কান্নায় কি লাভ? এমপি হতে শেষ চেষ্টায় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা যারাই ক্ষমতায় আসে তারাই ক্ষমতার অপপ্রয়োগ করে: ড. কামাল যৌন হয়রানি প্রতিরোধে খসড়া আইনের প্রস্তাব খালেদাকে জেলে রেখে নির্বাচনের কথা ভাবতে পারে না বিএনপি খালেদা জিয়াকে বাদ দিয়ে জাতীয় নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হতে পারে না উন্নয়নে সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে : মেনন

ভোটের দিতে গিয়ে অর্থমন্ত্রী ভ্যাটের বাজেট দিয়ে ফেলেছেন : ইশতিয়াক রেজা

জাতীয় সংবাদ, সকল শিরোনাম | ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪ | Saturday, June 3, 2017

---নিউজ-বাংলাদেশ, ঢাকা: একাত্তর টিভির বার্তা পরিচালক সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা বলেছেন, অর্থমন্ত্রী নিজের দেয়া বাজেট ভলো বলবেন, দুর্বলতা খুঁজে পাবেন না এটাই স্বাভাবিক। বাজেট ঘোষণা হয়েছে ৪ লাখ ২৬৬ হাজার কোটি টাকার। মোট বাজেটে ঘাটতি ১ লাখ ১২ হাজার কোটি টাকা। আমার প্রশ্ন, এই বিশাল ঘাটতি পূরণ হবে কীভাবে? আমার মনে হয়, অর্থমন্ত্রী নির্বাচন সামনে রেখে ভোটের বাজেট দিতে গিয়ে ভ্যাটের বাজেট দিয়ে ফেলেছেন।

২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেট বিষয়ে ডিবিসি নিউজ টিভি’র ‘সংবাদ সম্প্রসারণ’ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, বড় আকারের বাজেটের ধারাবাহিকতায় গত কয়েক বছর ধরে বড় বাজেট ঘোষণা করা হচ্ছে। কিন্তু বাস্তবায়ন কতটা হচ্ছে? দেখা যাচ্ছে বাজেট বাস্তবায়নের স্বক্ষমতা ক্রমাগতভাবে কমছে। আমার প্রশ্ন থেকে যায়, তবে বাজেটের আকার বারবার কেন বাজেট বাড়ানো হচ্ছে?

গত অর্থবছরের বাজেট সম্বন্ধে তিনি বলেন, বিগত বাজেট ঘোষণা করা হলো ৩ লাখ ৭৫ হাজার কোটি টাকার। শেষ পর্যন্ত বাজেট সংশোধনও করতে হলো। যা প্রতিবছরই হয়। কিন্তু সেই সংশোধিত বাজেটও শেষপর্যন্ত আমরা বাস্তবায়ন করতে পারিনি।

জনগণকে অন্ধকারে রেখে কৌশলে কর আরোপ করা হচ্ছে উল্লেখ করে ইসতিয়াক রেজা বলেন, মোট বাজেটের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করতে হলে প্রয়োজন ২ লাখ ৮৮ কোটি টাকার অর্থিক সংস্থান। যার মধ্যে এনবিআর খাত থেকেই আসতে হবে ২ লাখ ৪৮ হাজার কোটি টাকা। যেখানে ৫১ হাজার কোটি টাকাই আসবে ভ্যাট থেকে। কিন্তু ভ্যাট যেহেতু পরোক্ষ কর, আর পরোক্ষ কর সবসময় বিবর্তনমূলক হয় অর্থাৎ জনগণ জানতেও পারে না যে, কিভাবে তার কাছ থেকে কর কেটে নেওয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, অর্থমন্ত্রী ব্যক্তিগত কর না বাড়ানো ঘোষণা দিয়েছেন। যার মাধ্যমে সরকারের দ্বত পরিকল্পনা দেখতে পাচ্ছি। অন্যদিকে সরকার বলছে, ব্যক্তিগত আয় বেড়েছে। তাহলে ব্যক্তিগত আয় বাড়লে নিয়মানুযায়ী কর, কর দাতার সংখ্যা এবং করাসীমাও বাড়ার কথা। এতে বোঝা যাচ্ছে, সব মিলিয়ে একটা ব্যায় বাড়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে!

তিনি বলেন, অর্থমন্ত্রী যেখানেই সুযোগ পেয়েছেন সেখানেই হাত দিয়েছেন। এমনকি সাধারণ জনগণের পকেট থেকে টাকা কিভাবে নেওয়া যায় তারই একটা পরিকল্পনা দেখা যাচ্ছে। ব্যাংক এ্যাকাউন্টের ওপরেও এক্সেস ডিউটি দিয়েছেন। যার ফলে মানুষ ব্যাংক বিমূখ হবে এবং আমার কাছে যেটা মনে হয় সেটা হলো, বড় অংকের টাকা বাইরে পাচার হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।