সকল শিরোনাম

সীতাকুণ্ডে অজ্ঞাত রোগে ৯ জনের মৃত্যু সরকার দেশের পরিবেশ ও মানুষকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে: রিজভী সরকার অবাধ তথ্য প্রবাহে বিশ্বাস করে : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে চলেছ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনে বাংলাদেশের বিজ্ঞানীর বিশ্ব অবাক করা আবিষ্কার ‌‘দেশকে অস্থিতিশীল করার চক্রান্ত চলছে’ দেশে আল্লাহর গজব পড়েছে: এরশাদ দুই নগরে নৌকা চাই… বাহ! ভালইতো… ঢাকায় প্রতি ১১ জনের একজন চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্ত ‘গাড়ির চাপ দেখলেই মন্ত্রী-এমপিদের ধৈর্য মানে না’ বাংলাদেশকে সমর্থন দেবে থাইল্যান্ড ‘মুসলিমরা ডোনাট খায় না’ গুজবের নেপথ্যে পশ্চিমকে বাঁচান, আহ্বান ট্রাম্পের যানজট : গতি নেই; আছে দুর্গতি! ‘ঈদ চাঁদাবাজি’ বন্ধ হউক চালের দাম নিয়ন্ত্রণে আসছে না কেন? ক্ষমতাওয়ালাদের পাহাড় : আর লাশগুলো আমাদের! প্রিয়াঙ্কার প্রেমে পড়েছেন ‘দ্য রক’ সবুজ খেলে শরীরে যা বদলে যাবে! ব্যাংকিং খাতে অর্থমন্ত্রীর ‘পাপ কর’! ভোটের দিতে গিয়ে অর্থমন্ত্রী ভ্যাটের বাজেট দিয়ে ফেলেছেন : ইশতিয়াক রেজা হেফাজত এখন ‘গলার কাটা’ আ.লীগের, ভেতরে-বাইরে সমালোচনা বাড়ছে! শূকরের মাংসে ভ্যাট তুলে দিলেন অর্থমন্ত্রী: মানুষকে বোকা বানালেন বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে বরাদ্ধ বৃদ্ধি ভোক্তাদের সঙ্গে প্রহসন : ড. শামসুল


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনে বাংলাদেশের বিজ্ঞানীর বিশ্ব অবাক করা আবিষ্কার ‌‘দেশকে অস্থিতিশীল করার চক্রান্ত চলছে’ দুই নগরে নৌকা চাই… যানজট : গতি নেই; আছে দুর্গতি! ক্ষমতাওয়ালাদের পাহাড় : আর লাশগুলো আমাদের! শূকরের মাংসে ভ্যাট তুলে দিলেন অর্থমন্ত্রী: মানুষকে বোকা বানালেন বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে বরাদ্ধ বৃদ্ধি ভোক্তাদের সঙ্গে প্রহসন : ড. শামসুল বাজেট : সরকার বস্ত্রশিল্পের জন্য ভাবুক ধর্ষকদের সাথে ওদের শাস্তিও যেন হয়? রাজধানীর তৃণমূল গোছাচ্ছে আ.লীগ কিভাবে রাজনৈতিক নবজাতক থেকে ফ্রান্সের সর্বকনিষ্ঠ প্রেসিডেন্ট হলেন ম্যাক্রোঁ মৌসুমি ফলে ভয়াবহ ফরমালিন উধাও শিবির ক্যাডারদের খুঁজছে গোয়েন্দারা রাজধানীতে ডেঙ্গুর প্রকোপ বেড়েছে, সতর্ক থাকার পরামর্শ অটিস্টিকদের সহায়তায় এগিয়ে আসতে হবে রাষ্ট্রকে: প্রধানমন্ত্রী

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে বরাদ্ধ বৃদ্ধি ভোক্তাদের সঙ্গে প্রহসন : ড. শামসুল

শীর্ষ সংবাদ, সকল শিরোনাম | ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪ | Saturday, June 3, 2017

---নিউজ-বাংলাদেশ, ঢাকা : গ্যাসের দাম আরও বাড়বে, বিদ্যুতেও দিতে হবে ১৫ শতাংশ ভ্যাট। এমতাবস্থায় বাজেটে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে বরাদ্ধ বৃদ্ধিকে ভোক্তাদের সাথে প্রহসন বলেই মনে করেন কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) জ্বালানি উপদেষ্টা ড. শামসুল আলম।

অর্থমন্ত্রীর বাজেট ঘোষণায় গ্যাসের দ্বিতীয় দফার দাম বৃদ্ধি কার্যকর হয়েছে। ২০১৮ সালে গ্যাস আমদানি শুরু হলে আন্তর্জাতিক দামে গ্যাস কিনতে হবে। তখন দাম বাড়বে আবারও। যদিও জিনিসপত্রে দাম বাড়ার ফলে সাধারণ মানুষকে রেহাই দিতে বহু পণ্য সেবা ভ্যাটের আওতামুক্ত রাখা হলেও বিদ্যুতে ভ্যাট দিতে হবে ১৫ শতাংশ। যেখানে এখন দিতে হয় ৫ শতাংশ হারে।

এই বিষয়ে ক্যাবের জ্বালানি উপদেষ্টা ড. শামসুল আলম আরও বলেন, যে বস্তিতে থাকে তাকেও একই ভ্যাট দিতে হবে। আবার যে গুলশান বনানীতে যারা থাকে তাকেও ১৫ শতাংশ ভ্যাট দিতে হবে। কি অদ্ভূত পরিকল্পনা। এর নাম কি সমান- সমতা ?

তিনি বলেন, অর্থমন্ত্রীর দাবি ৮০ শতাংশ মানুষ বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় এসেছে। ২০২১ সালের মধ্যে সবাইকে এর সুিবধার আওতায় আনতে বাড়তে সঞ্চালন ও বিতরণ লাইন। এছাড়াও উৎপাদন বাড়াতে নির্মাণধীণ আছ ১১ হাজার ২১৪ মেগাওয়াটের ৩৩টি বিদ্যুৎ কেন্দ্র। পরিকল্পনায় আছে এরকমের আরও ৪২টি কেন্দ্র। কিন্তু এইস শুভঙ্করের ফাঁকি।

প্রস্তাবিত বাজেটে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে বরাদ্দ ধরা জয়েছে ২১ হাজার ১১৮ কোটি টাকা। যার মোট বাজেটের ৫.২৮ শতাংশ।