সর্বশেষ সংবাদ: বিজ্ঞানমনস্ক জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মানে শিক্ষকদের ভূমিকা শীর্ষক কর্মশালা নির্বাচনী মাঠে একঝাঁক তরুণ মনোনয়নপ্রত্যাশী খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা আগের চেয়েও উদ্বেগজনক নির্বাচনী প্রচারণায় ঘুম নেই ঢাকা দক্ষিনের প্রার্থীদের ৥ সড়ক দুর্ঘটনা : মায়া কান্নায় কি লাভ? ডেমরায় ট্রাফিকের ঝটিকা অভিযান ও অপরূত কিশোরী উদ্ধার সিসি ক্যামেরার আওতায় রামপুরা ট্রাফিক জোন ঢাকা-৫ আসনে বিএনপি-আ’লীগে একাধিক প্রার্থী, সুবিধাজন অবস্থানে জাপা খালেদাকে জেলে রেখে নির্বাচনের কথা ভাবতে পারে না বিএনপি আগামী নির্বাচনে অংশ গ্রহন না করলে বিএনপি অস্থিত্ব সংকটে পড়বে

সকল শিরোনাম

দু:স্থদের মাঝে বিসিএস পুলিশ পরিবারের ঈদ বস্ত্র বিতরণ ৬ কারণে বিশ্বকাপ জিতবে ব্রাজিল সবার জন্য স্বাস্থ্য প্রধানমন্ত্রীর কানাডা সফর ৬ জুন  দ্রব্যমূল্য বাড়ার মাস কী রমজান! সবকিছু স্বপ্নের মতো মনে হচ্ছে লিখিত স্থগিতাদেশ পেলে গাজীপুর সিটি নির্বাচনের জন্য আপিল করা হবে : অ্যাটর্নি জেনারেল সৌহার্দ্যপূর্ণ আন্তঃবাহিনী সম্পর্ক বজায় রাখার আহবান আইজিপির গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন ২৬ জুন বিজ্ঞানমনস্ক জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মানে শিক্ষকদের ভূমিকা শীর্ষক কর্মশালা নির্বাচনী মাঠে একঝাঁক তরুণ মনোনয়নপ্রত্যাশী দলের নয়, কাজের লোককে ভোট দিন: ওবায়দুল কাদের খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা আগের চেয়েও উদ্বেগজনক নির্বাচনী প্রচারণায় ঘুম নেই ঢাকা দক্ষিনের প্রার্থীদের ৥ সড়ক দুর্ঘটনা : মায়া কান্নায় কি লাভ? ডেমরায় ট্রাফিকের ঝটিকা অভিযান ও অপরূত কিশোরী উদ্ধার এমপি হতে শেষ চেষ্টায় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা যারাই ক্ষমতায় আসে তারাই ক্ষমতার অপপ্রয়োগ করে: ড. কামাল রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসনে ৫টি খাল খনন করবে ওয়াসা যৌন হয়রানি প্রতিরোধে খসড়া আইনের প্রস্তাব সিসি ক্যামেরার আওতায় রামপুরা ট্রাফিক জোন ঢাকা-৫ আসনে বিএনপি-আ’লীগে একাধিক প্রার্থী, সুবিধাজন অবস্থানে জাপা ফখরুলের বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিলেন রিজভী কালবৈশাখীর কারণে রূপালী ব্যা‍ংকের লিখিত পরীক্ষা বাতিল খালেদাকে জেলে রেখে নির্বাচনের কথা ভাবতে পারে না বিএনপি


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

৬ কারণে বিশ্বকাপ জিতবে ব্রাজিল বাপ্পী-মিমের প্রেম অনুরাগ প্রধানমন্ত্রীর কানাডা সফর ৬ জুন হাসান ইন্তিসার এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়েছে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন ২৬ জুন বিজ্ঞানমনস্ক জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মানে শিক্ষকদের ভূমিকা শীর্ষক কর্মশালা নির্বাচনী মাঠে একঝাঁক তরুণ মনোনয়নপ্রত্যাশী খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা আগের চেয়েও উদ্বেগজনক নির্বাচনী প্রচারণায় ঘুম নেই ঢাকা দক্ষিনের প্রার্থীদের ৥ সড়ক দুর্ঘটনা : মায়া কান্নায় কি লাভ? ডেমরায় ট্রাফিকের ঝটিকা অভিযান ও অপরূত কিশোরী উদ্ধার যৌন হয়রানি প্রতিরোধে খসড়া আইনের প্রস্তাব সিসি ক্যামেরার আওতায় রামপুরা ট্রাফিক জোন ঢাকা-৫ আসনে বিএনপি-আ’লীগে একাধিক প্রার্থী, সুবিধাজন অবস্থানে জাপা খালেদাকে জেলে রেখে নির্বাচনের কথা ভাবতে পারে না বিএনপি

ব্যাংকে জমে থাকা ৬১৪ কোটি টাকার লভ্যাংশ উধাও

ছবি স্লাইড, জাতীয় সংবাদ, শিক্ষা সাহিত্য, সকল শিরোনাম, সর্বশেষ সংবাদ | ২৫ বৈশাখ ১৪২৪ | Monday, May 8, 2017

বেসরকারি শিক্ষকদের বেতন

---নিউজ-বাংলাদেশ, ঢাকা: বেসরকারি স্কুল-কলেজ শিক্ষকদের বেতন খাতের জমে থাকা ৬১৪ কোটি টাকার লভ্যাংশ তুলে নিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের কিছু কর্মকর্তা। বাংলাদেশ ব্যাংকের তদন্ত দলের অনুসন্ধানে এমন তথ্য উঠে এসেছে। তাদের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বেসরকারি শিক্ষকদের বেতনের বরাদ্দ ৬১৪ কোটি টাকা বিতরণ করা না হলেও সে টাকা অর্থ মন্ত্রণালয়ে ফেরত যায়নি। এই টাকার লভ্যাংশ তুলে নেওয়া হয়েছে। তবে অধিদপ্তরের দাবি, এ খাতে কোনো অনিয়ম হয়নি, শিক্ষকদের প্রয়োজনেই টাকা রেখে দেয়া হয়েছে।

দেশের ৫ লাখ বেসরকারি স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসার শিক্ষক সরকারের এমপিও সুবিধা পান। এসব শিক্ষকের বেতন-ভাতা পরিশোধে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরে প্রতিমাসে অর্থ ছাড় করে অর্থ মন্ত্রণালয়। রাষ্ট্রায়ত্ত্ব চারটি ব্যাংকের মাধ্যমে এই অর্থ দেয়া হয়। তবে সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের তদন্তে এই বরাদ্দের অর্থ ব্যবহারে বড় অনিয়ম ধরা পড়েছে।

মাউশির কর্মকর্তারা জানান, বিভিন্ন জটিলতায় অনেক শিক্ষক প্রতি মাসে বেতন তুলতে পারেন না। সেই অর্থ ব্যাংকে থেকে যায়। এভাবে কয়েক বছরে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাংকে জমা হয়েছে প্রায় ৬১৪ কোটি টাকা। এই টাকার হিসাব গত তিন বছরে জানোনো হয়নি অর্থ মন্ত্রণালয়কে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুসন্ধানে দেখা গেছে, বেতন খাতে খরচ না হওয়া টাকা অর্থবছর শেষে অর্থ মন্ত্রণালয়ে ফেরত দেয়ার নিয়ম থাকলেও তা মানা হয়নি। মাউশি কর্মকর্তাদের একটি অংশ ব্যাংক কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগসাজশে তুলে নিয়েছেন তহবিলের লভ্যাংশ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদন অর্থ মন্ত্রণালয়ে জমা হওয়ার পর ১২ এপ্রিল তা মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরেও পাঠানো হয়েছে। তবে অনিয়মের অভিযোগ মানছে না অধিদপ্তর।

এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের অভিযোগ, মাসের নির্ধারিত তারিখে বেতনের সরকারি অংশ তুলতে গিয়ে অনেকেই সমস্যায় পড়ছেন। অনেকে আবার দীর্ঘদিন পাচ্ছেন না এমপিও সুবিধা।

বেতন আটকে রেখে লভ্যাংশ তুলে নেয়ার অভিযোগের বিষয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়কে এখনো ব্যাখ্যা দেয়নি মাউশি। তবে অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা বলছেন, শিক্ষকদের বেতন খাতে ব্যাংকে জমা টাকার হিসাব মেলানো হচ্ছে। শিগগিরই জবাব পাঠানো হবে অর্থ মন্ত্রণালয়ে।