সকল শিরোনাম

যানজট : গতি নেই; আছে দুর্গতি! ‘ঈদ চাঁদাবাজি’ বন্ধ হউক চালের দাম নিয়ন্ত্রণে আসছে না কেন? ক্ষমতাওয়ালাদের পাহাড় : আর লাশগুলো আমাদের! প্রিয়াঙ্কার প্রেমে পড়েছেন ‘দ্য রক’ সবুজ খেলে শরীরে যা বদলে যাবে! ব্যাংকিং খাতে অর্থমন্ত্রীর ‘পাপ কর’! ভোটের দিতে গিয়ে অর্থমন্ত্রী ভ্যাটের বাজেট দিয়ে ফেলেছেন : ইশতিয়াক রেজা হেফাজত এখন ‘গলার কাটা’ আ.লীগের, ভেতরে-বাইরে সমালোচনা বাড়ছে! শূকরের মাংসে ভ্যাট তুলে দিলেন অর্থমন্ত্রী: মানুষকে বোকা বানালেন বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে বরাদ্ধ বৃদ্ধি ভোক্তাদের সঙ্গে প্রহসন : ড. শামসুল লংগদুর ঘটনায় ৪০০ জনকে আসামি করে মামলা বাজেট : সরকার বস্ত্রশিল্পের জন্য ভাবুক ধর্ষকদের সাথে ওদের শাস্তিও যেন হয়? রাজধানীর তৃণমূল গোছাচ্ছে আ.লীগ প্রকল্পে প্রকল্পে সংঘর্ষ! বশ্বকবির ১৫৬ তম জন্মবার্ষিকী আজ ব্যাংকে জমে থাকা ৬১৪ কোটি টাকার লভ্যাংশ উধাও কিভাবে রাজনৈতিক নবজাতক থেকে ফ্রান্সের সর্বকনিষ্ঠ প্রেসিডেন্ট হলেন ম্যাক্রোঁ ফ্রান্সের নতুন প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ বেওয়ারিশ পরিচয়ে জঙ্গি মারজান ও সাদ্দামের দাফন বজ্রপাতে প্রাণহানি ক্রমেই বাড়ছে আজমপুর ফুটওভার ব্রিজে শ্রমিকদের ভিড় বনশ্রীতে ভাঙা সড়কে জলাবদ্ধতা : দুর্ভোগ মৌসুমি ফলে ভয়াবহ ফরমালিন


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

যানজট : গতি নেই; আছে দুর্গতি! চালের দাম নিয়ন্ত্রণে আসছে না কেন? ক্ষমতাওয়ালাদের পাহাড় : আর লাশগুলো আমাদের! প্রিয়াঙ্কার প্রেমে পড়েছেন ‘দ্য রক’ সবুজ খেলে শরীরে যা বদলে যাবে! হেফাজত এখন ‘গলার কাটা’ আ.লীগের, ভেতরে-বাইরে সমালোচনা বাড়ছে! শূকরের মাংসে ভ্যাট তুলে দিলেন অর্থমন্ত্রী: মানুষকে বোকা বানালেন বাজেট : সরকার বস্ত্রশিল্পের জন্য ভাবুক রাজধানীর তৃণমূল গোছাচ্ছে আ.লীগ প্রকল্পে প্রকল্পে সংঘর্ষ! বশ্বকবির ১৫৬ তম জন্মবার্ষিকী আজ ব্যাংকে জমে থাকা ৬১৪ কোটি টাকার লভ্যাংশ উধাও কিভাবে রাজনৈতিক নবজাতক থেকে ফ্রান্সের সর্বকনিষ্ঠ প্রেসিডেন্ট হলেন ম্যাক্রোঁ ফ্রান্সের নতুন প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ বজ্রপাতে প্রাণহানি ক্রমেই বাড়ছে

আজমপুর ফুটওভার ব্রিজে শ্রমিকদের ভিড়

ছবি স্লাইড, সকল শিরোনাম, সর্বশেষ সংবাদ | ২৫ বৈশাখ ১৪২৪ | Monday, May 8, 2017

---নিউজ-বাংলাদেশ, ঢাকা: রাজধানীর উত্তরার প্রাণকেন্দ্র আজমপুর ব্যস্ততম ওভারব্রিজটি ভোর না হতেই দিনমজুর ও কর্মপ্রত্যাশীদের দখলে চলে যায়। শত শত লোকের ভিড়ে স্কুল-কলেজগামী ও অফিসগামী লোকদের চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। ওভারব্রিজের নিচের দুই পাশের ফুটপাতের ১০০ গজের মধ্যে সাধারণের চলাচল অসম্ভব হওয়ায় বাধ্য হয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ওপর দিয়েই চলাচল করতে হয়। প্রধান রাস্তার ওপর দিয়ে চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ। দীর্ঘদিন ধরে এভাবে চলতে থাকলেও বিকল্প চিন্তা করছে না কেউ। অথচ ব্রিজটির ১০০ গজের মধ্যে আজমপুর সরকারি প্রাইমারি স্কুল মাঠ এবং কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠের প্রশস্ত জায়গা খালি পড়ে থাকে। যেখানে কয়েকশ’ লোক অবস্থান করলেও চলাচলে কোনো প্রভাব পড়বে না। কিন্তু সেখানে না দাঁড়িয়ে শ্রমিকরা ফুটওভার ব্রিজের ওপরে দাঁড়ায়।

উত্তরা ছাড়াও দূর-দূরান্ত থেকে দৈনিক কাজের আশায় ছুটে আসা লোকেরা কাজ পাওয়ার আশায় যেমন এখানে জড়ো হয়। তেমনি দিনমজুরের খোঁজে গাড়ি নিয়ে এলাকাবাসী এখানে ভিড় করেন। ভোর ৬টা থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত জায়গাটি কর্ম বেচাকেনার জায়গা হিসেবে ব্যবহৃত হয়। ফুটওভারব্রিজ পারাপারে সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়ে বৃদ্ধা, অসুস্থ এবং স্কুল কলেজগামী ছাত্রীরা।
নিকটস্থ আজমপুর প্রাইমারি স্কুল, নওয়াব হাবিবুল্লাহ মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, রাজউক কলেজ, আইইএস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, উত্তরা হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজসহ অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ওই ফুট ওভারব্রিজ ব্যবহার করেন। তাই বিকল্প জায়গা নির্ধারণই এ সমস্যার একমাত্র সমাধান। শিক্ষার্থীরা দ্রুত এ সমস্যা সমাধানের দাবি জানিয়েছেন।
উত্তরা হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্রী রাফসানা ইসলাম শশী বলেন, প্রতিদিন ওভারব্রিজ পার হয়ে স্কুলে আসতে হয়। কিন্তু ব্রিজের নিচে প্রচুর লোক দাঁড়িয়ে থাকে এবং আমাদের আসার জন্য সাইড দেয় না। বাধ্য হয়ে আমরা প্রধান রাস্তার পাশ দিয়ে ব্রিজে উঠি। এতে আমাদের অনেক সমস্যা হয়।
আইইএস স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্রী জুলেখা মারজান বলে, ওই ফুটওভার ব্রিজের নিচের রাস্তা কোনোভাবেই চলাচলের উপযোগী থাকে না। তাই আংকেল সাইড দেন বলতে বলতে আসি। অনেকে শুনেও সাইড দিতে চায় না। ওখানের লোকদের সরিয়ে দেয়ার ব্যবস্থা করলে আমাদের স্কুলে যেতে সুবিধা হয়। স্থানীয় রুচি রেস্তোরাঁর মালিক মোবারক হোসেন বলেন, কাজে আসা লোকদের তাড়ালে তারা কাজ না পেয়ে উপোস থাকবে। তাই তাদের না তাড়িয়ে বিকল্প স্থান নির্ধারণ করে দিলে পথচারী এবং কর্মপ্রত্যাশী উভয়ের সুবিধা হবে।
উত্তরা অ্যাসোসিয়েশনের নিরাপত্তা সম্পাদক রহিম উল হক বলেন সমস্যাটি দীর্ঘদিনের। এলাকার সবাই এ সমস্যা নিয়েই চলছে। তাই জরুরি এর একটি সুষ্ঠু সমাধান দরকার। তিনি বিকল্প স্থান হিসেবে আজমপুর প্রাইমারি স্কুল মাঠ অথবা কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে শ্রমিকদের দাঁড়ানোর ব্যবস্থা করার পরামর্শ দেন। উত্তরা পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু বকর মিয়া বলেন, তিনি কয়েকদিন অফিসার এবং ফোর্স পাঠিয়ে ফুটপাট খালি করেছেন। কিন্তু পরক্ষণেই আবার কর্মপ্রত্যাশীদের দখলে চলে যায়। তিনি বিকল্প হিসেবে আজমপুর প্রাইমারি স্কুল মাঠ অথবা ঈদগাহ মাঠ ব্যবহারের ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান।