সকল শিরোনাম

সেবা খাতে ঘুষ-দুর্নীতি বন্ধ হবে কবে? কেন সাংবাদিক নির্যাতন? সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুর সর্বোচ্চ সাজা ৫ বছরের জেল রূপগঞ্জে গাজা ও ইয়াবাসহ শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার আসামের তালিকা নিয়ে বাংলাদেশের দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই: ভারতীয় হাইকমিশনার প্রধানমন্ত্রী বললে পদত্যাগ করব : নৌমন্ত্রী শিশুরা আমাদের চোখ-কান খুলে দিয়েছে : মনিরুল শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নিলেন প্রধানমন্ত্রী তারকারা রাস্তায় পুলিশের নামে মামলা দিতে সার্জেটকে বাধ্য করলো শিক্ষার্থীরা আন্দোলনও থামুক; সড়কও নিরাপদ হউক দু:স্থদের মাঝে বিসিএস পুলিশ পরিবারের ঈদ বস্ত্র বিতরণ ৬ কারণে বিশ্বকাপ জিতবে ব্রাজিল সবার জন্য স্বাস্থ্য প্রধানমন্ত্রীর কানাডা সফর ৬ জুন  দ্রব্যমূল্য বাড়ার মাস কী রমজান! সবকিছু স্বপ্নের মতো মনে হচ্ছে লিখিত স্থগিতাদেশ পেলে গাজীপুর সিটি নির্বাচনের জন্য আপিল করা হবে : অ্যাটর্নি জেনারেল সৌহার্দ্যপূর্ণ আন্তঃবাহিনী সম্পর্ক বজায় রাখার আহবান আইজিপির গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন ২৬ জুন বিজ্ঞানমনস্ক জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মানে শিক্ষকদের ভূমিকা শীর্ষক কর্মশালা নির্বাচনী মাঠে একঝাঁক তরুণ মনোনয়নপ্রত্যাশী দলের নয়, কাজের লোককে ভোট দিন: ওবায়দুল কাদের খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা আগের চেয়েও উদ্বেগজনক নির্বাচনী প্রচারণায় ঘুম নেই ঢাকা দক্ষিনের প্রার্থীদের


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

কেন সাংবাদিক নির্যাতন? সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুর সর্বোচ্চ সাজা ৫ বছরের জেল রূপগঞ্জে গাজা ও ইয়াবাসহ শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার আন্দোলনও থামুক; সড়কও নিরাপদ হউক ৬ কারণে বিশ্বকাপ জিতবে ব্রাজিল বাপ্পী-মিমের প্রেম অনুরাগ প্রধানমন্ত্রীর কানাডা সফর ৬ জুন হাসান ইন্তিসার এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়েছে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন ২৬ জুন বিজ্ঞানমনস্ক জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মানে শিক্ষকদের ভূমিকা শীর্ষক কর্মশালা নির্বাচনী মাঠে একঝাঁক তরুণ মনোনয়নপ্রত্যাশী খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা আগের চেয়েও উদ্বেগজনক নির্বাচনী প্রচারণায় ঘুম নেই ঢাকা দক্ষিনের প্রার্থীদের ৥ সড়ক দুর্ঘটনা : মায়া কান্নায় কি লাভ? ডেমরায় ট্রাফিকের ঝটিকা অভিযান ও অপরূত কিশোরী উদ্ধার

আজমপুর ফুটওভার ব্রিজে শ্রমিকদের ভিড়

ছবি স্লাইড, সকল শিরোনাম, সর্বশেষ সংবাদ | ২৫ বৈশাখ ১৪২৪ | Monday, May 8, 2017

---নিউজ-বাংলাদেশ, ঢাকা: রাজধানীর উত্তরার প্রাণকেন্দ্র আজমপুর ব্যস্ততম ওভারব্রিজটি ভোর না হতেই দিনমজুর ও কর্মপ্রত্যাশীদের দখলে চলে যায়। শত শত লোকের ভিড়ে স্কুল-কলেজগামী ও অফিসগামী লোকদের চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। ওভারব্রিজের নিচের দুই পাশের ফুটপাতের ১০০ গজের মধ্যে সাধারণের চলাচল অসম্ভব হওয়ায় বাধ্য হয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ওপর দিয়েই চলাচল করতে হয়। প্রধান রাস্তার ওপর দিয়ে চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ। দীর্ঘদিন ধরে এভাবে চলতে থাকলেও বিকল্প চিন্তা করছে না কেউ। অথচ ব্রিজটির ১০০ গজের মধ্যে আজমপুর সরকারি প্রাইমারি স্কুল মাঠ এবং কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠের প্রশস্ত জায়গা খালি পড়ে থাকে। যেখানে কয়েকশ’ লোক অবস্থান করলেও চলাচলে কোনো প্রভাব পড়বে না। কিন্তু সেখানে না দাঁড়িয়ে শ্রমিকরা ফুটওভার ব্রিজের ওপরে দাঁড়ায়।

উত্তরা ছাড়াও দূর-দূরান্ত থেকে দৈনিক কাজের আশায় ছুটে আসা লোকেরা কাজ পাওয়ার আশায় যেমন এখানে জড়ো হয়। তেমনি দিনমজুরের খোঁজে গাড়ি নিয়ে এলাকাবাসী এখানে ভিড় করেন। ভোর ৬টা থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত জায়গাটি কর্ম বেচাকেনার জায়গা হিসেবে ব্যবহৃত হয়। ফুটওভারব্রিজ পারাপারে সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়ে বৃদ্ধা, অসুস্থ এবং স্কুল কলেজগামী ছাত্রীরা।
নিকটস্থ আজমপুর প্রাইমারি স্কুল, নওয়াব হাবিবুল্লাহ মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, রাজউক কলেজ, আইইএস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, উত্তরা হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজসহ অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ওই ফুট ওভারব্রিজ ব্যবহার করেন। তাই বিকল্প জায়গা নির্ধারণই এ সমস্যার একমাত্র সমাধান। শিক্ষার্থীরা দ্রুত এ সমস্যা সমাধানের দাবি জানিয়েছেন।
উত্তরা হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্রী রাফসানা ইসলাম শশী বলেন, প্রতিদিন ওভারব্রিজ পার হয়ে স্কুলে আসতে হয়। কিন্তু ব্রিজের নিচে প্রচুর লোক দাঁড়িয়ে থাকে এবং আমাদের আসার জন্য সাইড দেয় না। বাধ্য হয়ে আমরা প্রধান রাস্তার পাশ দিয়ে ব্রিজে উঠি। এতে আমাদের অনেক সমস্যা হয়।
আইইএস স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্রী জুলেখা মারজান বলে, ওই ফুটওভার ব্রিজের নিচের রাস্তা কোনোভাবেই চলাচলের উপযোগী থাকে না। তাই আংকেল সাইড দেন বলতে বলতে আসি। অনেকে শুনেও সাইড দিতে চায় না। ওখানের লোকদের সরিয়ে দেয়ার ব্যবস্থা করলে আমাদের স্কুলে যেতে সুবিধা হয়। স্থানীয় রুচি রেস্তোরাঁর মালিক মোবারক হোসেন বলেন, কাজে আসা লোকদের তাড়ালে তারা কাজ না পেয়ে উপোস থাকবে। তাই তাদের না তাড়িয়ে বিকল্প স্থান নির্ধারণ করে দিলে পথচারী এবং কর্মপ্রত্যাশী উভয়ের সুবিধা হবে।
উত্তরা অ্যাসোসিয়েশনের নিরাপত্তা সম্পাদক রহিম উল হক বলেন সমস্যাটি দীর্ঘদিনের। এলাকার সবাই এ সমস্যা নিয়েই চলছে। তাই জরুরি এর একটি সুষ্ঠু সমাধান দরকার। তিনি বিকল্প স্থান হিসেবে আজমপুর প্রাইমারি স্কুল মাঠ অথবা কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে শ্রমিকদের দাঁড়ানোর ব্যবস্থা করার পরামর্শ দেন। উত্তরা পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু বকর মিয়া বলেন, তিনি কয়েকদিন অফিসার এবং ফোর্স পাঠিয়ে ফুটপাট খালি করেছেন। কিন্তু পরক্ষণেই আবার কর্মপ্রত্যাশীদের দখলে চলে যায়। তিনি বিকল্প হিসেবে আজমপুর প্রাইমারি স্কুল মাঠ অথবা ঈদগাহ মাঠ ব্যবহারের ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান।