সর্বশেষ সংবাদ: বিজ্ঞানমনস্ক জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মানে শিক্ষকদের ভূমিকা শীর্ষক কর্মশালা নির্বাচনী মাঠে একঝাঁক তরুণ মনোনয়নপ্রত্যাশী খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা আগের চেয়েও উদ্বেগজনক নির্বাচনী প্রচারণায় ঘুম নেই ঢাকা দক্ষিনের প্রার্থীদের ৥ সড়ক দুর্ঘটনা : মায়া কান্নায় কি লাভ? ডেমরায় ট্রাফিকের ঝটিকা অভিযান ও অপরূত কিশোরী উদ্ধার সিসি ক্যামেরার আওতায় রামপুরা ট্রাফিক জোন ঢাকা-৫ আসনে বিএনপি-আ’লীগে একাধিক প্রার্থী, সুবিধাজন অবস্থানে জাপা খালেদাকে জেলে রেখে নির্বাচনের কথা ভাবতে পারে না বিএনপি আগামী নির্বাচনে অংশ গ্রহন না করলে বিএনপি অস্থিত্ব সংকটে পড়বে

সকল শিরোনাম

দু:স্থদের মাঝে বিসিএস পুলিশ পরিবারের ঈদ বস্ত্র বিতরণ ৬ কারণে বিশ্বকাপ জিতবে ব্রাজিল সবার জন্য স্বাস্থ্য প্রধানমন্ত্রীর কানাডা সফর ৬ জুন  দ্রব্যমূল্য বাড়ার মাস কী রমজান! সবকিছু স্বপ্নের মতো মনে হচ্ছে লিখিত স্থগিতাদেশ পেলে গাজীপুর সিটি নির্বাচনের জন্য আপিল করা হবে : অ্যাটর্নি জেনারেল সৌহার্দ্যপূর্ণ আন্তঃবাহিনী সম্পর্ক বজায় রাখার আহবান আইজিপির গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন ২৬ জুন বিজ্ঞানমনস্ক জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মানে শিক্ষকদের ভূমিকা শীর্ষক কর্মশালা নির্বাচনী মাঠে একঝাঁক তরুণ মনোনয়নপ্রত্যাশী দলের নয়, কাজের লোককে ভোট দিন: ওবায়দুল কাদের খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা আগের চেয়েও উদ্বেগজনক নির্বাচনী প্রচারণায় ঘুম নেই ঢাকা দক্ষিনের প্রার্থীদের ৥ সড়ক দুর্ঘটনা : মায়া কান্নায় কি লাভ? ডেমরায় ট্রাফিকের ঝটিকা অভিযান ও অপরূত কিশোরী উদ্ধার এমপি হতে শেষ চেষ্টায় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা যারাই ক্ষমতায় আসে তারাই ক্ষমতার অপপ্রয়োগ করে: ড. কামাল রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসনে ৫টি খাল খনন করবে ওয়াসা যৌন হয়রানি প্রতিরোধে খসড়া আইনের প্রস্তাব সিসি ক্যামেরার আওতায় রামপুরা ট্রাফিক জোন ঢাকা-৫ আসনে বিএনপি-আ’লীগে একাধিক প্রার্থী, সুবিধাজন অবস্থানে জাপা ফখরুলের বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিলেন রিজভী কালবৈশাখীর কারণে রূপালী ব্যা‍ংকের লিখিত পরীক্ষা বাতিল খালেদাকে জেলে রেখে নির্বাচনের কথা ভাবতে পারে না বিএনপি


কুলাঙ্গার সন্তানের বিরুদ্ধে আদালতের রায়

এক্সক্লুসিভ, ছবি স্লাইড, সকল শিরোনাম, সর্বশেষ সংবাদ | ৫ চৈত্র ১৪২৩ | Sunday, March 19, 2017

---যে সন্তানরা নিজের বাবা-মায়ের সঙ্গে একই বাড়িতে থেকে তাদের সঙ্গেই দুর্ব্যবহার করেন, তাদের বাড়ি থেকে ঘাড়ধাক্কা দিয়ে বের করে দিতে পারেন অভিভাবকেরা। এক্ষেত্রে সম্পত্তির ভাগ থেকেও তাদের বঞ্চিত করা হতে পারে।

এক্ষেত্রে সেই বাড়িটি বাবা-মায়ের নামেই হতে হবে অথবা তাদের নামে থাকতে হবে এমন কোনও মানে নেই। দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতি মনমোহন এমনই নির্দেশ শুনিয়েছেন।

এক মামলায় রায় শোনাতে গিয়ে বিচারপতি মনমোহন বলেছেন, যতক্ষণ বাবা-মায়ের সম্পত্তির উপরে আইনি অধিকার রয়েছে, তারা তাদের সাবালক সন্তানদের বাড়ি থেকে বের করে দিতে পারেন। কারণ নানা রায়ে বারবার উল্লেখ করা হয়েছে যে বরিষ্ঠ নাগরিকদের শান্তিতে ও সম্মানের সঙ্গে বাঁচার পূর্ণ অধিকার রয়েছে।

দিল্লির এক প্রাক্তন পুলিশকর্মী ও তার ভাইকে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়। দুজনে তাদের বৃদ্ধ বাবা-মায়ের সঙ্গে থাকতেন। তাদের উপরে অত্যাচারের অভিযোগ ওঠে দুজনের বিরুদ্ধে। বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া নিয়ে আদালতে মামলা করলে সেই রায়ের প্রেক্ষিতেই ৫১ পাতার রায়ে আদালত জানিয়েছে, দুই ভাই তাদের বৃদ্ধ বাবা-মাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতেন। এক্ষেত্রে দশ বছর আগে বয়স্কদের সুস্থ জীবন নিশ্চিত করতে তৈরি করা আইনে স্পষ্ট বলা হয়েছে, প্রতিটি বয়স্ক নাগরিককে সুস্থভাবে ও শান্তিতে বাঁচার অধিকার রয়েছে। ফলে ছেলে-মেয়ে যিনিই এই শান্তি ভঙ্গের চেষ্টা করবে তাকে বাড়ি থেকে বের করায় কোনও আইনি বাধা থাকবে না। কারণ এর সঙ্গে বৃদ্ধ নাগরিকদের সুস্থভাবে বেঁচে থাকার মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয় জড়িয়ে রয়েছে। এর পাশাপাশি দিল্লি সরকারকে উচ্চ আদালত নির্দেশ দিয়েছে একটি অ্যাকশন প্ল্যান তৈরি করে বয়স্ক নাগরিকদের সুরক্ষিত জীবন দিতে হবে। তারা যাতে ভয়হীন ও নিঃসঙ্কোচে জীবন অতিবাহিত করতে পারে তা নিশ্চিত করতেও আদালত সরকারকে নির্দেশ দিয়েছে।

- ইন্টারনেট