সর্বশেষ সংবাদ: বিজ্ঞানমনস্ক জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মানে শিক্ষকদের ভূমিকা শীর্ষক কর্মশালা নির্বাচনী মাঠে একঝাঁক তরুণ মনোনয়নপ্রত্যাশী খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা আগের চেয়েও উদ্বেগজনক নির্বাচনী প্রচারণায় ঘুম নেই ঢাকা দক্ষিনের প্রার্থীদের ৥ সড়ক দুর্ঘটনা : মায়া কান্নায় কি লাভ? ডেমরায় ট্রাফিকের ঝটিকা অভিযান ও অপরূত কিশোরী উদ্ধার সিসি ক্যামেরার আওতায় রামপুরা ট্রাফিক জোন ঢাকা-৫ আসনে বিএনপি-আ’লীগে একাধিক প্রার্থী, সুবিধাজন অবস্থানে জাপা খালেদাকে জেলে রেখে নির্বাচনের কথা ভাবতে পারে না বিএনপি আগামী নির্বাচনে অংশ গ্রহন না করলে বিএনপি অস্থিত্ব সংকটে পড়বে

সকল শিরোনাম

দু:স্থদের মাঝে বিসিএস পুলিশ পরিবারের ঈদ বস্ত্র বিতরণ ৬ কারণে বিশ্বকাপ জিতবে ব্রাজিল সবার জন্য স্বাস্থ্য প্রধানমন্ত্রীর কানাডা সফর ৬ জুন  দ্রব্যমূল্য বাড়ার মাস কী রমজান! সবকিছু স্বপ্নের মতো মনে হচ্ছে লিখিত স্থগিতাদেশ পেলে গাজীপুর সিটি নির্বাচনের জন্য আপিল করা হবে : অ্যাটর্নি জেনারেল সৌহার্দ্যপূর্ণ আন্তঃবাহিনী সম্পর্ক বজায় রাখার আহবান আইজিপির গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন ২৬ জুন বিজ্ঞানমনস্ক জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মানে শিক্ষকদের ভূমিকা শীর্ষক কর্মশালা নির্বাচনী মাঠে একঝাঁক তরুণ মনোনয়নপ্রত্যাশী দলের নয়, কাজের লোককে ভোট দিন: ওবায়দুল কাদের খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা আগের চেয়েও উদ্বেগজনক নির্বাচনী প্রচারণায় ঘুম নেই ঢাকা দক্ষিনের প্রার্থীদের ৥ সড়ক দুর্ঘটনা : মায়া কান্নায় কি লাভ? ডেমরায় ট্রাফিকের ঝটিকা অভিযান ও অপরূত কিশোরী উদ্ধার এমপি হতে শেষ চেষ্টায় মনোনয়ন প্রত্যাশীরা যারাই ক্ষমতায় আসে তারাই ক্ষমতার অপপ্রয়োগ করে: ড. কামাল রাজধানীর জলাবদ্ধতা নিরসনে ৫টি খাল খনন করবে ওয়াসা যৌন হয়রানি প্রতিরোধে খসড়া আইনের প্রস্তাব সিসি ক্যামেরার আওতায় রামপুরা ট্রাফিক জোন ঢাকা-৫ আসনে বিএনপি-আ’লীগে একাধিক প্রার্থী, সুবিধাজন অবস্থানে জাপা ফখরুলের বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিলেন রিজভী কালবৈশাখীর কারণে রূপালী ব্যা‍ংকের লিখিত পরীক্ষা বাতিল খালেদাকে জেলে রেখে নির্বাচনের কথা ভাবতে পারে না বিএনপি


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

৬ কারণে বিশ্বকাপ জিতবে ব্রাজিল বাপ্পী-মিমের প্রেম অনুরাগ প্রধানমন্ত্রীর কানাডা সফর ৬ জুন হাসান ইন্তিসার এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়েছে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন ২৬ জুন বিজ্ঞানমনস্ক জ্ঞানভিত্তিক সমাজ বিনির্মানে শিক্ষকদের ভূমিকা শীর্ষক কর্মশালা নির্বাচনী মাঠে একঝাঁক তরুণ মনোনয়নপ্রত্যাশী খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা আগের চেয়েও উদ্বেগজনক নির্বাচনী প্রচারণায় ঘুম নেই ঢাকা দক্ষিনের প্রার্থীদের ৥ সড়ক দুর্ঘটনা : মায়া কান্নায় কি লাভ? ডেমরায় ট্রাফিকের ঝটিকা অভিযান ও অপরূত কিশোরী উদ্ধার যৌন হয়রানি প্রতিরোধে খসড়া আইনের প্রস্তাব সিসি ক্যামেরার আওতায় রামপুরা ট্রাফিক জোন ঢাকা-৫ আসনে বিএনপি-আ’লীগে একাধিক প্রার্থী, সুবিধাজন অবস্থানে জাপা খালেদাকে জেলে রেখে নির্বাচনের কথা ভাবতে পারে না বিএনপি

দেহব্যবসা ছেড়ে আবারও ফিরছেন অভিনয়ে

ছবি স্লাইড, জীবন যেমন, সকল শিরোনাম | ১৬ শ্রাবণ ১৪২৩ | Sunday, July 31, 2016

 

মাত্র ১১ বছর বয়সে ‘মাকড়ি’ ছবির জন্য জাতীয় পুরস্কার পেয়েছিলেন শ্বেতা বসু। তারপর ২০১৪ সালে দেহব্যবসার সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছিলেন।

দু’মাস পুনর্বাসন কেন্দ্রে থাকার পর সম্প্রতি আবারও ফিরেছেন অভিনয়ে। নতুন অধ্যায় শুরু স্বল্পদৈর্ঘ্যের ছবি ‘ইন্টিরিয়র ক্যাফে নাইট’ দিয়ে।

দেহব্যবসা থেকে আবারও অভিনয় জীবনে ফিরে আসাকে ‘কামব্যাক’ বলতে নারাজ শ্বেতা। তার মতে এটা ছিল বিবর্তন।

সম্প্রতি ভারতীয় গণমাধ্যমে দেয়া সাক্ষাৎকারে এমন কথাই বলেছেন এ অভিনেত্রী।

জাতীয় পুরস্কার পাওয়া। তারপর ওরকম একটা ঘটনা। তারপর আবার অভিনয়ে ফিরে আসা। কামব্যাকটা কেমন লাগছে? এমন প্রশ্নে শ্বেতা বসু বলেন, কীসের কামব্যাক? আমি কামব্যাকে বিশ্বাস করি না।

তিনি বলেন, আমি অভিনেত্রী। সব সময় অভিনেত্রীই ছিলাম। মাঝের সময়টা একটা বিবর্তনের মতো। আমি জানি আমি কী করেছি। অভিনয় ছাড়া কখনও কিছু করিনি, ভাবিওনি। তাই আমি মনে করি না এটা কোনও কামব্যাক।

‘ইন্টিরিয়র ক্যাফে নাইট’ স্বল্পদৈর্ঘ্যের ছবি সম্পর্কে শ্বেতা বলেন, নবীনের সঙ্গে একটা চুম্বনের দৃশ্য রয়েছে। দৃশ্যটি করতে কোনো অসুবিধে হয়নি। ওটাকে আমি ওভাবে চুম্বনের দৃশ্য হিসেবে দেখিইনি।

তিনি বলেন, দৃশ্যটায় আমাদের কাঁদতে কাঁদতে চুমু খেতে হয়েছিল। সেটা বরং কঠিন ছিল। নবীন অনেক বেশি ঘাবড়ে গিয়েছিল! ওকে আমিই বুঝিয়েছিলাম যে, এটা কোনও ব্যাপারই নয়। দু’জনেই ওটা কাজ ভেবেই করেছিলাম