সকল শিরোনাম

.রূপগঞ্জে পিএসসি পরীক্ষায় অনিয়মের অন্ত:নেই স্বপ্ন-সুখের সংসার করা হলোনা রিমুর : ডেমরায় প্ররোচনায় পড়ে গলায় ফাঁস দিয়ে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা ডেমরায় পঙ্গুদের মাঝে হুইল চেয়ার ও ক্রাচ বিতরণ শেখ হাসিনা বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘস্থায়ী নারী শাসক ধর্মের নামে একটি কুচক্রিমহল শিক্ষিতযুবকদের ভুলপথে নেয়ার ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে: হাবিবুর রহমান মোল্লা এমপি আল-রাফি হাসপাতালের উদ্যোগে চিকিৎসকদল রোহিঙ্গা ক্যাম্পে শুভ জন্মদিন প্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনা -নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন চলন্ত বাসে গণধর্ষণ করে হত্যার লোমহর্ষক বর্ণনা: আদালতে স্বীকারোক্তি ইউরোপ থেকে অবৈধ বাংলাদেশিদের ফেরত আনতে চুক্তির খসড়া চূড়ান্ত রোহিঙ্গা গণহত্যা বন্ধে আসিয়ানকে ভূমিকা নেওয়ার আহবান থমকে গেছে বিএনপি ঈদে আসছে রনি’র মিউজিক ভিডিও “কোরবানি” সীতাকুণ্ডে অজ্ঞাত রোগে ৯ জনের মৃত্যু সরকার দেশের পরিবেশ ও মানুষকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে: রিজভী সরকার অবাধ তথ্য প্রবাহে বিশ্বাস করে : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে চলেছ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনে বাংলাদেশের বিজ্ঞানীর বিশ্ব অবাক করা আবিষ্কার ‌‘দেশকে অস্থিতিশীল করার চক্রান্ত চলছে’ দেশে আল্লাহর গজব পড়েছে: এরশাদ দুই নগরে নৌকা চাই… বাহ! ভালইতো… ঢাকায় প্রতি ১১ জনের একজন চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্ত ‘গাড়ির চাপ দেখলেই মন্ত্রী-এমপিদের ধৈর্য মানে না’ বাংলাদেশকে সমর্থন দেবে থাইল্যান্ড ‘মুসলিমরা ডোনাট খায় না’ গুজবের নেপথ্যে


এ পাতার অন্যান্য সংবাদ

স্বপ্ন-সুখের সংসার করা হলোনা রিমুর : ডেমরায় প্ররোচনায় পড়ে গলায় ফাঁস দিয়ে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা ডেমরায় পঙ্গুদের মাঝে হুইল চেয়ার ও ক্রাচ বিতরণ শেখ হাসিনা বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘস্থায়ী নারী শাসক ধর্মের নামে একটি কুচক্রিমহল শিক্ষিতযুবকদের ভুলপথে নেয়ার ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে: হাবিবুর রহমান মোল্লা এমপি আল-রাফি হাসপাতালের উদ্যোগে চিকিৎসকদল রোহিঙ্গা ক্যাম্পে শুভ জন্মদিন প্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনা -নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন ইউরোপ থেকে অবৈধ বাংলাদেশিদের ফেরত আনতে চুক্তির খসড়া চূড়ান্ত থমকে গেছে বিএনপি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে চলেছ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনে বাংলাদেশের বিজ্ঞানীর বিশ্ব অবাক করা আবিষ্কার দেশে আল্লাহর গজব পড়েছে: এরশাদ দুই নগরে নৌকা চাই… ঢাকায় প্রতি ১১ জনের একজন চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্ত ‘গাড়ির চাপ দেখলেই মন্ত্রী-এমপিদের ধৈর্য মানে না’ বাংলাদেশকে সমর্থন দেবে থাইল্যান্ড

দেহব্যবসা ছেড়ে আবারও ফিরছেন অভিনয়ে

ছবি স্লাইড, জীবন যেমন, সকল শিরোনাম | ১৬ শ্রাবণ ১৪২৩ | Sunday, July 31, 2016

 

মাত্র ১১ বছর বয়সে ‘মাকড়ি’ ছবির জন্য জাতীয় পুরস্কার পেয়েছিলেন শ্বেতা বসু। তারপর ২০১৪ সালে দেহব্যবসার সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছিলেন।

দু’মাস পুনর্বাসন কেন্দ্রে থাকার পর সম্প্রতি আবারও ফিরেছেন অভিনয়ে। নতুন অধ্যায় শুরু স্বল্পদৈর্ঘ্যের ছবি ‘ইন্টিরিয়র ক্যাফে নাইট’ দিয়ে।

দেহব্যবসা থেকে আবারও অভিনয় জীবনে ফিরে আসাকে ‘কামব্যাক’ বলতে নারাজ শ্বেতা। তার মতে এটা ছিল বিবর্তন।

সম্প্রতি ভারতীয় গণমাধ্যমে দেয়া সাক্ষাৎকারে এমন কথাই বলেছেন এ অভিনেত্রী।

জাতীয় পুরস্কার পাওয়া। তারপর ওরকম একটা ঘটনা। তারপর আবার অভিনয়ে ফিরে আসা। কামব্যাকটা কেমন লাগছে? এমন প্রশ্নে শ্বেতা বসু বলেন, কীসের কামব্যাক? আমি কামব্যাকে বিশ্বাস করি না।

তিনি বলেন, আমি অভিনেত্রী। সব সময় অভিনেত্রীই ছিলাম। মাঝের সময়টা একটা বিবর্তনের মতো। আমি জানি আমি কী করেছি। অভিনয় ছাড়া কখনও কিছু করিনি, ভাবিওনি। তাই আমি মনে করি না এটা কোনও কামব্যাক।

‘ইন্টিরিয়র ক্যাফে নাইট’ স্বল্পদৈর্ঘ্যের ছবি সম্পর্কে শ্বেতা বলেন, নবীনের সঙ্গে একটা চুম্বনের দৃশ্য রয়েছে। দৃশ্যটি করতে কোনো অসুবিধে হয়নি। ওটাকে আমি ওভাবে চুম্বনের দৃশ্য হিসেবে দেখিইনি।

তিনি বলেন, দৃশ্যটায় আমাদের কাঁদতে কাঁদতে চুমু খেতে হয়েছিল। সেটা বরং কঠিন ছিল। নবীন অনেক বেশি ঘাবড়ে গিয়েছিল! ওকে আমিই বুঝিয়েছিলাম যে, এটা কোনও ব্যাপারই নয়। দু’জনেই ওটা কাজ ভেবেই করেছিলাম