সকল শিরোনাম

সুষ্ঠু নির্বাচনে দেশ কি সক্ষম? অবৈধ পাকিং, চাঁদাবাজী আর ঘুষের মিশেল হরদম! প্রার্থী না হওয়ার কারণ জানালেন ড. কামাল ফেসবুকে প্রতারণার প্রেমের ফাদেঁ ফেলে কলেজ ছাত্রীকে ব্লাক মেইলিংয়ের অভিযোগ ঢাকা-৫ আসন : ডেমরায় জাতীয় পার্টির গণসংযোগ ও কর্মিসভা ৬ দফা দাবি : ডেমরায় রাষ্ট্রায়ত্ব পাটকল শ্রমিকদের জনসভা বদলে যাবে ৩০০ ফুট সড়ক অপরাধী শনাক্ত করতে প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়ছে টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত ঐক্যফ্রন্ট প্রস্তুতি নিচ্ছে, নির্বাচনে আসবে: কাদের পঞ্চগড় থেকে দেশের দীর্ঘতম রুটে ট্রেনচলাচল শুরু বাম জোটের নির্বাচন তফসিল প্রত্যাখ্যান সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে ইসির সাহসী পদক্ষেপ চাই: বি চৌধুরী খেজুরের ভেতর ইয়াবা! ‘আমার বাড়ি ভোলা, পারলে কিছু কইরেন’ আ’লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী ২১ নভেম্বর কোনো অপশক্তি ভর করুক তা কাম্য নয়: নাসিম তাবলিগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রণক্ষেত্র, আহত ১০ দাবি না মানলে নির্বাচন হতে দেয়া হবে না: রাজশাহীতে ফখরুল বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট বুঝে পেল বাংলাদেশ শেখ হাসিনার মনোনয়ন ফরম কিনলেন ওবায়দুল কাদের যে বেটারা আমার গাড়ি ঘুরিয়ে দিয়েছে, আমি ওদের মাথা ঘুরিয়ে দেব: কাদের সিদ্দিকী এই তফসিলে ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনে যাবে না সচিব হলেন দুই কর্মকর্তা, ভারপ্রাপ্ত সচিব ৩ জন


সার নিয়ে অবৈধ বাণিজ্য

অন্যান্য, সকল শিরোনাম, সর্বশেষ সংবাদ | ২ মাঘ ১৪২২ | Friday, January 15, 2016

 

---এক সময়ের ‘তলাবিহীন ঝুড়ি’ বাংলাদেশ আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। নিজের দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশেও রপ্তানি হচ্ছে বাংলাদেশের খাদ্য। শুধু খাদ্যশস্য নয়, কৃষি উত্পাদনে বাংলাদেশের সাফল্য অসামান্য। দেশের কৃষি উত্পাদনে কৃষকের যেমন অবদান রয়েছে, তেমনি সরকারও কৃষিতে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনে ব্যাপক কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। কৃষিতে ব্যবহূত সার, বীজ, সেচের পানি সুলভ ও সহজলভ্য করতে সরকারের পক্ষ থেকে ভর্তুকির ব্যবস্থা করা হয়েছে। সঠিক সময়ে সেচ দিতে বিদ্যুৎ ও জ্বালানিতে ভর্তুকি দেওয়া হচ্ছে। মাঠের ফসলে সার দিয়েও ভর্তুকি দিচ্ছে সরকার। দেশে উত্পাদিত সার পাঁচ হাজার ৪০০ ডিলারের মাধ্যমে কম দামে কৃষকের কাছে পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কিন্তু বাস্তবতা একেবারেই ভিন্ন। ভর্তুকির সার নিয়ে একটি চিহ্নিত সিন্ডিকেট কিভাবে ব্যবসা করছে তার বাস্তব চিত্র বেরিয়ে এসেছে কালের কণ্ঠ’র অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে। চট্টগ্রামের টিএসপি সার কমপ্লেক্সের ডিএপি সার কারখানার কিছু অসাধু কর্মকর্তার সহযোগিতায় মাঝিরহাটের দুটি ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট এই অবৈধ বাণিজ্য করে আসছে।

সরকার প্রতি কেজি টিএসপি ও ডিএপি সারে ১৮ টাকা ভর্তুকি দেয়। নিয়ম অনুযায়ী সরকারের ভর্তুকির সার অনুমোদিত ব্যবসায়ীদের কাছে সরাসরি বিক্রি করার কথা। ডিলাররা বরাদ্দপত্র অনুযায়ী সার তুলে নিজেদের এলাকায় বিক্রি করবেন—এটাই নিয়ম। কিন্তু বাস্তবে তা হচ্ছে না। সার ডিলাররা তাঁদের বরাদ্দপত্র অবৈধ সিন্ডিকেটের কাছে বিক্রি করতে বাধ্য হন। কালের কণ্ঠে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, দুই সিন্ডিকেটের প্রথম সিন্ডিকেট বরাদ্দপত্র কিনে নিয়ে বিক্রি করে দেয় দ্বিতীয় সিন্ডিকেটের কাছে। এই দ্বিতীয় সিন্ডিকেটের কেউই সার ব্যবসায়ী নন। পরিবহন ব্যবসায়ী এই সিন্ডিকেট বরাদ্দপত্র বিক্রি করে ব্যবসায়ীদের কাছে। তিন হাত ঘুরে সার যায় ব্যবসায়ীদের কাছে। এর ফলে এলাকার কৃষককে বাধ্য হয়ে বেশি দামে সার কিনতে হয়। সরকারের ভর্তুকি দেওয়ার উদ্দেশ্য ব্যাহত হচ্ছে এভাবেই। সারের চালান থেকে পুলিশকেও উেকাচ দিতে হয়। আবার সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে অভিযোগ করলে হিতে বিপরীত ঘটে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে লিখিত অভিযোগ করায় এক সার ব্যবসায়ীকে হত্যার হুমকি দেওয়ার খবরও এসেছে কালের কণ্ঠে। নিরাপত্তা চেয়ে থানায় জিডি করেছেন তিনি।

কৃষি ও কৃষকের উন্নয়নের জন্যই সরকারের ভর্তুকি নীতি। অসাধু সিন্ডিকেট সরকারের এই উদ্দেশ্য ব্যাহত করছে। সারের ভর্তুকির সুফল পাচ্ছে না কৃষক। বাড়ছে উত্পাদন খরচ। কাজেই এই সিন্ডিকেট ও অসাধু কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে। আমরা আশা করব, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।